স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা : সামনে লোকসভা ভোট আর সেই ভোটের কথা মাথায় রেখে বাংলার হিন্দুদের মন পেতে চাইছেন মুখ্যমন্ত্রী। সে কারণেই আজ দিনরাত দুর্গা নাম জপছেন। এমনটাই দাবি বিশ্ব হিন্দু পরিষদের।

সোমবার ঝাড়গ্রামের জনসভা থেকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছিলেন ‘বিজেপি রামের পুজো করে, আমরা দুর্গাপুজো করি। রামও দুর্গার পুজো করেছিলেন রাবণকে বধ করার জন্য।’ কিন্তু আজ কেন হঠাৎ রাজনৈতিক মঞ্চ থেকে মুখ্যমন্ত্রীকে ধর্ম, পুজোপার্বণ নিয়ে কথা বলতে হচ্ছে? রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের মতে হিন্দুত্বের নৌকায় চেপে বাংলায় বিজেপির বাড়বাড়ন্ত মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে চিন্তায় রাখছে।

কয়েকবছর আগে মহরমের দিন দুর্গাপুজোর বিসর্জন বন্ধ করার নির্দেশ দিয়েছিল রাজ্যের শাসক দল। সংখ্যালঘু ভোটব্যাংককে খুশি রাখতেই ওই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল বলে অভিযোগ পশ্চিমবঙ্গের হিন্দুত্ববাদী সংগঠনগুলির।

বিশ্বহিন্দু পরিষদের দক্ষিণবঙ্গ প্রান্ত সহসভাপতি চন্দ্রনাথ দাস বলেন, “একটা সময় অবধি রাজ্যে সংখ্যালঘু ভোট ব্যাংকের জন্য মুসলিম তোষণ চলত। আজ রাজনৈতিক দলগুলি হিন্দু ভোটের গুরুত্ব বুঝতে পারছে। রাজ্যে হিন্দুদের একত্রিত করার কাজ করছে বিশ্ব হিন্দু পরিষদ।”

মুখ্যমন্ত্রীর দুর্গাপুজো করার বিষয়ে হিন্দু সংগঠনটির নেতা বলেন, “দুর্গাপুজো করার কথা উনি বলছেন, এ যেন ভুতের মুখে রাম নাম। তবে রামনাম করলে সব সময় ভালো হয়। উনি আজ দুর্গা পুজো নিয়ে উৎসাহ দেখাচ্ছেন ভালো কথা। ভগবান রামচন্দ্র দুর্গা পুজো করেছিলেন। দুর্গাপুজো করা মানেই রামকে শ্রদ্ধা করা। উনি রাজনীতির লোক, তাই এই সব বলেছেন। এভাবে হিন্দু দেবদেবীর ভাগ করা সম্ভব নয়।”

--
----
--