নয়াদিল্লি : খুব দ্রুত জম্মু কাশ্মীর জঙ্গি মুক্ত হবে৷ কারণ যেভাবে সেনা আক্রমণ চালাচ্ছে, তাতে জঙ্গিদের জীবনের মেয়াদ বেশি নয়৷ ইতিমধ্যেই গত দুবছরে ৩৬০ জন জঙ্গিকে নিকেশ করেছে সেনা৷ এই তথ্যই তুলে ধরলেন সিআরপিএফের ডিরেক্টর জেনারেল (ডিজি) রাজীব রাই ভাটনাগর৷

সংবাদ সংস্থা পিটিআইকে দেওয়া এক সাক্ষাতকারে ডিজি বলেন এই পরিসংখ্যানই সেনার সাফল্যের কথা তুলে ধরছে৷ কাশ্মীরি যুবকরা যাতে জঙ্গি দলে যোগ না দেন, তার জন্য সবসময় সচেষ্ট সেনা৷ ডিজি বলেন জঙ্গি গোষ্ঠীতে যুবকদের যোগদান রুখতে সাধারণ মানুষের সঙ্গে যোগাযোগ বাড়াচ্ছে সেনা৷ তাদের জীবনের মূলস্রোতে ফিরিয়ে আনার চেষ্টা চলছে৷

Advertisement

ডিজি আরও বলেন সেনা জওয়ানদের জীবনের দাম রয়েছে৷ তাই নিরাপত্তা ও সুরক্ষার দিকটিও ভেবে দেখছে সেনা কর্তৃপক্ষ৷ জওয়ানদের নিরাপত্তায় বিশেষ প্রযুক্তির ব্যবহার করছে সেনা৷ একইসঙ্গে ব্যবহার করা হচ্ছে আধুনিক অস্ত্রও৷ ফুল বডি প্রোটেকটার থেকে শুরু করে ইন্টারসেপশান ভেহিক্যালসের ব্যবহার বাড়ানো হয়েছে৷

কিছু জঙ্গি উপত্যকার মধ্যেই গা ঢাকা দিয়ে রয়েছে, কিছু জঙ্গি সীমান্তের ওপার থেকে এদেশের অনুপ্রবেশের চেষ্টা করছে৷ এছাড়াও কিছু বিপথগামী যুবক রয়েছে, যাদের মগজ ধোলাই করে জঙ্গি দলে যোগ দানের ছক কষা হচ্ছে৷ এদের সঙ্গেই লড়াই করছে সেনা বলে জানান সিআরপিএফের ডিজি৷

তাঁর মতে চলতি দুবছরের পরিসংখ্যান খতিয়ে দেখলে নজরে আসবে জঙ্গিদের সংখ্যা কখনও কমছে, কখনও বাড়ছে৷ কিন্তু জঙ্গিদের জীবনকাল কমে এসেছে৷ তাই জঙ্গিদের সংখ্যা বাড়লেও তাতে চিন্তার কিছু নেই৷ তারা সেনার হাতে নিকেশ হবেই৷ তিনি জানান কাশ্মীর পুলিসের সঙ্গে যোগাযোগ রেখে কাজ করছে সিআরপিএফ৷ এই দুই সংস্থার সমন্বয় সাধনের ফলেই জঙ্গিদের বিরুদ্ধে একের পর এক অভিযান সফল হচ্ছে বলে মত তাঁর৷

----
--