ভারতে পরমাণু হামলার প্ররোচক শিরিন হতে পারেন পাক রক্ষামন্ত্রী

ইসলামাবাদ: এখনও পর্যন্ত পাক প্রধানমন্ত্রীর পদে শপথ নেননি পিটিআই প্রধান ইমরান খান৷ আর এরই মধ্যে মন্ত্রীত্বের পদ নিয়ে জল্পনা কল্পনা শুরু হয়ে গিয়েছে৷ সূত্রের খবর, যুদ্ধের পরিস্থিতিতে ভারতের জনবহুল স্থানের ওপর পরমাণু হামলার নির্দেশ দিয়েছিলেন যে স্কলার সেই শিরিন মাজারি এবার পাকিস্তানের প্রতিরক্ষার শীর্ষপদে বসতে চলেছেন বলে মনে করা হচ্ছে৷ ইমরান খান পাক প্রতিরক্ষার জন্য শিরিনকে(ইমরান ঘনিষ্ঠ) বেছে নিতে পারেন বলে রাজনৈতিক মহলের মত৷

১৯৯৯ সালে একটি ডিফেন্স জার্নালে শিরিন ভারতের জনবহুল এলাকায় পরমাণু অস্ত্র হামলার পক্ষ সায় দিয়েছিলেন৷ স্বভাবতই এমন একজন মনোভাবাসম্পন্ন ব্যক্তির পাকিস্তানের প্রতিরক্ষামন্ত্রী হওয়ার জল্পনায় আশঙ্কায় রয়েছে রাজনৈতিক মহল৷ রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের মতে, শিরিন এই গুরুত্বপূর্ণ পদে আসীন হলে ভারত সহ পিশ্চমের দেশগুলির সঙ্গে পাকিস্তানের সম্পর্কে আরও নেতিবাচক প্রভাব পড়তে পারে৷

পড়ুন: মসনদে ইমরান আসতেই পাকিস্তানকে ২০০ কোটি ডলার ঋণ দিচ্ছে চিন

- Advertisement -

শিরিন পরিষ্কার জানিয়েছিলেন, যুদ্ধের পরিস্থিতিতে ইসলামাবাদের দিল্লি এবং মুম্বইয়ের কাছাকাছি থাকা পরমাণু অস্ত্রভাণ্ডারগুলি ধ্বংস করে দেওয়া উচিত৷ তিনি এও বলেন ভারতের জনবহুল স্থানের কাছাকাছিই রয়েছে এগুলি৷

প্রসঙ্গত, শিরিন এর আগে একটি ইংরেজি দৈনিকের সম্পাদক হিসেবে কাজ করেছেন৷ সে সময় তিনি একটি রিপোর্ট প্রকাশ করেন, যা তীব্র সমালোচনার ঝড় তোলে৷ এক রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞ তো এমনও নাকি বলেছিলেন, আমেরিকা এবং ভারতের বিষয়ে তাঁর মনোভাব বিদ্বেষপূর্ণ এবং আপত্তিকর৷ উল্লেখ্য, ১৯৮৮সালের ৩১ ডিসেম্বর ভারত-পাকিস্তানের মধ্যে এক চুক্তির ভিত্তিতে দুই দেশ একে অপরের পরমাণু ভাণ্ডারকে টার্গেট করবে না বলা হয়৷

Advertisement
---