বাবার স্মৃতিতে স্কুল পড়ুয়াদের খাতা পেনসিল দিলেন ছেলে

মেচেদা: যতদিন বাবা বেঁচে ছিলেন সমাজের প্রতি নিজের কর্তব্যে অবিচল ছিলেন৷ বাবার আত্মার শান্তি কামনা করে ছেলেও হাঁটলেন সে পথেই৷ বাবার শ্রাদ্ধানুষ্ঠানে স্কুল ছাত্র-ছাত্রীদের বই, খাতা তুলে দিলেন তিনি৷ মানুষের মধ্যেই ইশ্বরের বাস, বিশ্বাস করতেন মেচেদার মহাদেব সামন্ত৷ ছেলে চন্দন সামন্তকেও সেই বোধেই উদ্বুদ্ধ করেছেন৷ বাবার মৃত্যুর পর চন্দনের এরকম সিদ্ধান্তে গর্বিত পরিবারের লোকজন৷

পূর্ব মেদিনীপুর জেলার মেচেদার মহাদেব সামন্ত৷ সমাজসেবী ও নাট্য ব্যক্তিত্ব হিসাবে এলাকায় পরিচিতি ছিল তাঁর৷ গত ১৬ই জুলাই ইহলোক ত্যাগ করেন মহাদেববাবু৷ তারই শ্রাদ্ধানুষ্ঠানে ছেলে চন্দন সামন্ত স্থানীয় শান্তিপুর বোর্ড প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রায় ২০০ জন ছাত্র-ছাত্রীকে বই, খাতা, পেন্সিল তুলে দেন৷

- Advertisement DFP -

চন্দনবাবুর এই উদ্যোগে যেমন স্কুলের ছাত্র-ছাত্রীরা খুশি৷ উচ্ছ্বসিত স্কুলের শিক্ষক থেকে এলাকার লোকজন৷ বাবার দেখানো পথে হেঁটে তাঁর দেওয়া শিক্ষাকেই জনসমক্ষে তুলে আনলেন চন্দন সামন্ত৷ এলাকার লোকজনের কথায়, এমন উদ্যোগ তো দেখাই যায় না৷

চন্দনবাবুর এই উদ্যোগ সমগ্র জেলার মানুষের কাছে নজর কেড়েছে। চন্দনবাবু জানান, “বাবার আত্মার শান্তি কামনার জন্য প্রতি বছর এভাবেই ছাত্র-ছাত্রীদের বই-খাতা বিতরণ করব৷” অভিনব এই উদ্যোগকে সাধুবাদ জানিয়ে ওই স্কুলের প্রধান শিক্ষক বলেন, “আমরা খুব খুশি৷ ২০০ ছাত্র-ছাত্রীকে স্কুল সরঞ্জাম দেওয়ার জন্য আমরাও চন্দনবাবুকে ধন্যবাদ জানাই৷’’

Advertisement
----
-----