হুমায়ুনকে গেরুয়া শিবিরে পাঠিয়ে নিজের জন্য ইট পাতলেন অধীর: শুভেন্দু

স্টাফ রিপোর্টার, বহরমপুর: তৃণমূল কংগ্রেসের নিশানায় ফের অধীর চৌধুরী৷ ২১ জুলাইয়ের প্রস্তুতি সভার মঞ্চ থেকে আবারও আক্রমণ করা হল বহরমপুরের সাংসদকে৷ এবারও প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতির সমালোচনায় সরব হলেন রাজ্যের পরিবহণ মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী৷

মুর্শিদাবাদ জেলায় তৃণমূল কংগ্রেসের পর্যবেক্ষক শুভেন্দু অধিকারীর দাবি, আগামিদিনে গেরুয়া শিবিরে নাম লেখাবেন অধীর চৌধুরী৷ তাই রেজিনগরের প্রাক্তন বিধায়ক হুমায়ুন কবীরকে আগেই গেরুয়া শিবিরে পাঠিয়েছেন৷ এভাবেই অধীর গেরুয়া শিবিরে যাওয়ার জন্য ইট পেতে রাখলেন বলে দাবি করেছেন শুভেন্দু অধিকারী৷

আরও পড়ুন: শত্রুর ঢুকে মারাত্মক ‘রশ্মি’ ঢুকিয়ে মেরে ফেলবে চিনের নতুন অস্ত্র

- Advertisement -

প্রসঙ্গত, গত কয়েকমাস ধরে প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতির বিজেপিতে যোগদান ঘিরে জল্পনা চলছে৷ তিনি নিজে যদিও একাধিকবার সেই জল্পনায় জল ঢেলে দিয়েছেন৷ স্পষ্টভাবে জানিয়েছেন, তিনি বিজেপিতে যোগ দিচ্ছেন না৷ তার পরও জল্পনা থামার নাম নেই৷ রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের ব্যাখ্যা, সেই জল্পনাকেই কিছুটা উস্কে দিলেন শুভেন্দু অধিকারী৷

পূর্ব মেদিনীপুরের এই দাপুটে তৃণমূল নেতা সোমবার সকালে হাজির হয়েছিলেন মুর্শিদাবাদের বহরমপুরে৷ সেখানে আয়োজন করা হয়েছিল ২১ জুলাইয়ের প্রস্তুতি সভা৷ বহরমপুরের রবীন্দ্রসদনে আয়োজিত ওই সভায় হাজির হয়ে শুভেন্দু অধিকারী শুধু অধীর চৌধুরীকে আক্রমণ করে থেমে থাকেননি৷ বরং মুর্শিদাবাদে তৃণমূলের সাফল্য ও কংগ্রেসের ব্যর্থতার খতিয়ান তুলে ধরেছেন৷ আগামিদিনে জেলার কিছু রাজনৈতিক পূর্বাভাসও দিয়েছেন৷

আরও পড়ুন: জঙ্গলমহলে বিজেপিকে ঠেকাতে দলের সংগঠনে রদবদল মমতার

তিনি বলেন, ‘‘মুর্শিদাবাদে কংগ্রেস বলে কিছু থাকবে না৷ এককদল হিসেবে তৃণমূল থাকবে৷ ২০১৯ সালে মুর্শিদাবাদে তিনটি লোকসভা আসন দখল করবে তৃণমূল।’’ এর পর তিনি ফের আক্রমণ করেন অধীরকে৷ বলেন, ‘‘অধীর চৌধুরী নিজের আসন হারাবেন৷ কারণ, ওঁর সঙ্গে আর কোনও কংগ্রেস কর্মী নেই৷ পাশাপাশি ২০১৮ সালে নভেম্বর মাসে বহরমপুর পুরসভা নির্বাচন বিরোধী শূন্য করা হবে৷’’

মুর্শিদাবাদ এতদিন কংগ্রেসের শক্তঘাঁটি ছিল৷ অথচ সেখানে এখন তৃণমূলের জয়জয়কার৷ অধীর চৌধুরীর মতো দাপুটে একজন নেতা থাকতে ওই জেলায় কেন কংগ্রেসের এই হাল? এই প্রশ্ন উঠছে৷

আরও পড়ুন: মিঠুনের ছেলে ও বউয়ের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ

তার জবাব এদিন তৈরিই ছিল শুভেন্দু অধিকারীর কাছে৷ তিনি বলেন, ‘‘অধীর চৌধুরী ২০১৬ থেকে সিপিএমের সঙ্গে বন্ধুত্ব করেছেন৷ তাও বিধায়কদেরকে নিজের দলে আটকে রাখতে পারছেন না৷ আগামিদিনে আরও বেশ কিছু বিধায়ক কংগ্রেস থেকে তৃণমূলে আসছেন।’’

একই সঙ্গে তিনি জানান, মুর্শিদাবাদে যে সমস্ত গ্রাম পঞ্চায়েত এখনও পর্যন্ত ত্রিশঙ্কু রয়েছে, সেই সমস্ত গ্রাম পঞ্চায়েত তৃণমূল যাতে ক্ষমতায় আসে তার দিকে নজর রাখার জন্য জেলা তৃণমূল নেতৃত্বকে নির্দেশ দেন শুভেন্দু অধিকারী।

আরও পড়ুন: মেক্সিকোর বিরুদ্ধে মার্সেলোকে পাচ্ছে না ব্রাজিল

Advertisement ---
---
-----