দেবনাথ মাইতি, খড়গপুর: সময় এসেছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের পালানোর। একইসঙ্গে সময় এসেছে তৃণমূল কংগ্রেসের পতনের। সোমবার রেলের শহর খড়গপুরে এসে এই মন্তব্য করলেন বিজেপি নেতা সিদ্ধার্থ নাথ সিংহ।

এদিন রাজ্যের পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার খড়গপুরে এসে তৃণমূল কংগ্রেস নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সহ বাম-কংগ্রেস জোটকেও আক্রমণ করেছেন সিদ্ধার্থ নাথ সিং। তাঁর কথায়, “২০০১ সালে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এমনই একটি স্টিং অপারেশনের কারণে সরকার এনডিএ ছেড়ে এসেছিলেন। সেইসঙ্গে জর্জ ফার্নান্ডেজকে ইস্তফা দিতে বাধ্য করেছিলেন। এখন তাঁর দলের সাংসদ-বিধায়ক-মন্ত্রী সহ একডজন লোকের ঘুষ নেওয়ার ছবি ফাঁস হয়েছে। এই ব্যাপারে কোনো পদক্ষেপই গ্রহণ করেননি মমতা।” নারদ নিউজের ভিডিওটি জাল ভিডিও বলে দাবি করেছেন তৃণমূলের একাধিক নেতা। এই বিষয়ে তৃণমূলের প্রতি সিদ্ধার্থ নাথ সিংয়ের কটাক্ষ, “চোর কখনই চুরি করে স্বীকার করেনা।” বাম-কংগ্রেসকে আক্রমণ করে তিনি বলেছেন, “লোকসভার এথিক্স কমিটিতে নারদ নিউজের ভিডিও ফুটেজ পাঠানো তদন্ত করার জন্য, লোকসভায় আমাদের শক্তি আছে আমরা করেছি। রাজ্যসভায় বিজেপি সাংসদেরা এই নিয়ে আওয়াজ তুললেও বামফ্রন্ট বা কংগ্রেসের সাংসদেরা উপস্থিত থাকলেও মুখ খোলেননি।” বাম-কংগ্রেসরা আসলে বিজেপিকে আটকাতে মমতার সুবিধা করে দিচ্ছে বলেও মন্তব্য করেছেন সিদ্ধার্থনাথ। বাম-কংগ্রেস ঘুরপথে তৃণমূল কংগ্রেসের দুর্নীতিতে সাহায্য করছে বলেও দাবি করেছেন তিনি। পশ্চিমবঙ্গের আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপির জয়ের বিষয়েও আশাবাদী সিদ্ধার্থনাথ সিং। আগামী ২৭ মার্চ খড়গপুরে জনসভা করবেন নরেন্দ্র মোদী।

Siddharrthnath
খড়গপুরে দলীয় নেতাদের সঙ্গে সিদ্ধার্থনাথ সিং
----
--