আইপিএলে নেই স্মিথ-ওয়ার্নার

মুম্বই: দেশের জার্সিতে নির্বাসিত হওয়ার পর আইপিএলেও দরজা বন্ধ দুই ‘প্রতারক’ অজি ক্রিকেটারের৷স্টিভ স্মিথ ও ডেভিড ওয়ার্নার একাদশ আইপিএলে মাটে নামতে পারবেন না বলে পরিষ্কার জানিয়ে দিলেন আইপিএল চেয়ারম্যান রাজীব শুক্লা৷

বুধবারই বল বিকৃতিতে অভিযুক্ত তিন ক্রিকেটার স্মিথ, ওয়ার্নার ও ব্যানক্রফটকে নির্বাসিত করেছে ক্রিকেটার৷স্মিথ ও ওয়ার্নার এক বছর এবং ব্যানক্রফট ৯ মাসের জন্য নির্বাসিত হয়েছেন৷ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার এই ঘোষণার পরই আসন্ন আইপিএলে স্মিথ ও ওয়ার্নারকে ছেঁটে ফেলার সিদ্ধান্ত নিল আইপিএল গভর্নিং কাউন্সিল৷

আরও পড়ুন: ১ বছরের নির্বাসন স্মিথ ও ওয়ার্নারের

- Advertisement -

আইপিএল চেয়ারম্যান রাজীব শুক্লা জানান, ‘ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার যে দু’জন ক্রিকেটারকে নির্বাসিত করেছে, আইপিএলেও তাদের জন্য কোনও জায়গা নেই৷ প্রথমে আমরা আইসিসির সিদ্ধান্ত এবং পরে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার সিদ্ধান্তের জন্য অপেক্ষা করছিলাম৷ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার এই ঘোষণার পরই আমরা ওদের নির্বাসন দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিই৷’

বল বিকৃতির ঘটনার প্রকাশে আসার পরই স্মিথকে নেতৃত্ব সরিয়ে দেয় রাজস্থান রয়্যালস৷স্মিথকে সরিয়ে অজিঙ্ক রাহানের হাতে নেতৃত্বের ব্যাটন তুলে দেয় দু’বছরের নির্বাসন কাটিয়ে আইপিএলে ফেরা রাজস্থান ফ্র্যাঞ্চাইজি৷আর বুধবার ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার নির্বাসনের ঠিক আগে সানরাইজার্স হায়দরাবাদের নেতৃত্ব সরে দাঁড়ান ওয়ার্নার৷কিন্তু নেতৃত্ব হারানোই নয়, ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার নির্বাসন ঘোষণার পরই দুই ‘প্রতারক’ অজি ক্রিকেটার স্মিথ ও ওয়ার্নারকে আইপিএল থেকে ছেঁটে ফেলার সিদ্ধান্ত নেয় আইপিএল গভর্নিং কাউন্সিল৷

আরও পড়ুন: ‘জয়, জয় এবং জয়’এই নীতিই কি অজিদের অসৎ বানিয়েছে!

দেশের জার্সিতে এক বছর মাঠ নামতে না-পারার পাশাপাশি আগামী দু’ বছর দেশকে নেতৃত্ব দেওয়ার অধিকার কেড়ে নেওয়া হল দুই ‘প্রতারক’ অজি ক্রিকেটারের কাছ থেকে৷ বুধবার প্রেস বিবৃতিতে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার তরফে এমনটা ঘোষণা করা হয়৷ যদিও তিন খেলোয়াড়ই শাস্তির বিরুদ্ধে আবেদন করত পারবেন৷ কিন্তু স্মিথরা আবদেন করতে পারবেন নির্বাসিত সময়ের মধ্যে৷ স্বাধীন কমিশনারের নেতৃত্ব ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার আচরণবিধি মেনেই শুনানি হবে৷যদিও বুধবারই ক্রিকেট দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে দেশ ফিরছেন নির্বাসিত তিন ক্রিকেট স্মিথ, ওয়ার্নার এবং ব্যানক্রফট৷ দেশে ফেরার পর সিডনিতে কথা বললেন নির্বাসিত অজি ক্যাপ্টেন স্মিথ৷

আরও পড়ুন: We cheat at cricket: ভাইরাল স্মিথ-ব্যানক্রফটের মকিং ভিডিও

নিউল্যান্ডস দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে টেস্টের তৃতীয় দিন দুপুরে টিভি ক্যামেরায় বল বিকৃতির ঘটনা ধরা পড়ার পর বিশ্বক্রিকেট তোলপাড় পড়ে যায়৷ দেখা যায় একটি হলুদ রংয়ের জিনিস দিয়ে বলে দাগ কাটার পর সেটি টাউজারের ভেতর ঢোকাচ্ছেন ব্যানক্রফট৷ টেলিভিশন ফুটেজে পরিষ্কার দেখা যাচ্ছে ব্যানক্রফট বলের ঘষা দিকে হলুদ জিনিসটি দিয়ে দাগ কাটছে এবং পরে পালিশ দিকটা প্যান্টে ঘষছে৷ পরিবর্ত ফিল্ডার পিটার হ্যান্সকম্ব মাঠে নামার পরই এই ঘটনা ঘটে৷ ফলে এই ঘটনা কোচ ডারেন লেম্যানের মস্কিষ্কপ্রসুত মনে করছে ক্রিকেটমহল৷

Advertisement
-----