বিক্রমের সঙ্গে দুবছর একসঙ্গে কাটিয়েছি: সোলাঙ্কি

রিল লাইফে তিনি বিক্রমের নায়িকা৷ নায়কের সঙ্কটে সবসময় পাশে দেখা গিয়েছে তাঁকে৷রিল লাইফের মতো এবার রিয়েল লাইফেও অনুরাগের পাশে দাঁড়াল তাঁর মেঘলা৷কলকাতা২৪x৭-নিউজ পোর্টালে নিজের মনের কথা জানাল মেঘলা৷

অভিনেতা বিক্রমের গাড়ি দুর্ঘটনায় মৃত্যু হয়েছে নামী মডেল সোনিকা সিং চৌহানের৷তদন্তে নেমে পুলিশ জানতে পারে মদ্যপ অবস্থার গাড়ি চালাচ্ছিল বিক্রম৷তার জেরেই দুর্ঘটনা৷পুলিশি জেরায় বিক্রমও মদ্যপ থাকার কথা স্বীকার করেছেন৷তদন্ত যত এগোচ্ছে ততই রহস্য বাড়ছে৷সোনিকা-বিক্রমকে নিয়ে মানুষের কৌতুহল এখন তুঙ্গে৷ সোশ্যাল মিডিয়া থেকে পাড়ার রকের আড্ডাতেও এনিয়ে জোর চর্চা চলছে৷ এই পরিস্থিতিতে দাঁড়িয়ে মুখ খুললেন ইচ্ছেনদীর নায়িকা সোলাঙ্কি রায়৷

রোজভ্যালির সঙ্গে টলিউডি যোগসাজসের মতো সোনিকা মৃত্যুও ধামাচাপা পড়বে: শ্রীলেখা

সোলাঙ্কির কথায়, বিক্রম তো শুধু আমার সহ-অভিনেতা ছিল না খুব ভাল বন্ধুও ছিল৷বন্ধু হিসেবে ও খুবই ভাল৷দুবছর ধরে ইচ্ছেনদীর শুটিং চলছে৷ এই দুবছর একসঙ্গে আমরা অনেকটা সময় একসঙ্গে কাটিয়েছি৷যে ঘটনাটা ঘটে গেল তার জন্য খুবই খারাপ লাগছে৷

ভয়েস ফর বিক্রম পেজে লাইক না করলেও রিল লাইফে বিক্রমের নায়িকা বুঝিয়ে দিয়েছেন তিনি বিক্রমের পাশেই আছেন৷সোলাঙ্কির কথায়, আমরা সবাই ওর পাশে আছি৷বিক্রমকে মেন্টালি সাপোর্ট দিচ্ছি৷ কিন্তু ওকে যে ট্রমার মধ্যে দিয়ে যেতে হচ্ছে সেই অবস্থাটা ও ছাড়া আর কেউ ফিল করতে পারবে না৷শুটিং ফ্লোরে তো দেখা হয় তাছাড়া আমি ফোনেও ওর সঙ্গে যোগাযোগ রাখি৷ কাকুকেও(বিক্রমের বাবা)ফোন করেছিলাম৷

বিক্রমের সঙ্গে ভালো সম্পর্ক থাকা নায়িকা অরুণিমার গাড়িও দুর্ঘটনার কবলে

গত কয়েকদিন ধরে সোশ্যাল মিডিয়ায় একটা প্রশ্ন ঘুরপাক খাচ্ছে৷ অনেকেরই প্রশ্ন গাড়ি দুর্ঘটনায় কালিকাপ্রসাদের চালক যদি গ্রেফতার হতে পারে তাহলে এই অভিযোগে বিক্রম কেন গ্রেফতার হবে না৷ তাও আবার যখন মদ্যপ অবস্থায় গাড়ি চালাচ্ছিল বিক্রম৷এই একই প্রশ্ন তুলেছেন কালিকাপ্রসাদের গাড়ির চালক অর্ণব ঘোষের মা৷

এ প্রসঙ্গে সোলাঙ্কির বক্তব্য, পুলিশই ভাল জানে কোন কেসে কি রকম অ্যাকশন নিতে হবে৷কোনটা জামিনযোগ্য ধারা হবে আর কোনটা জামিনঅযোগ্য৷আইন আইনের পথেই চলবে৷ বিক্রম যদি দোষী হয় তাহলে ও শাস্তি পাবে তা না হলে ওকে কেউ আটকে রাখতে পারবে না৷

----
-----