ভাঙন রুখতে জনসংযোগে গুরুত্ব সোনিয়া

নয়াদিল্লি: ছেলের ঘাড়ে দায়িত্ব চাপিয়ে বিশ্রামে ছিলেন মা৷ ছেলের লাগাতার ব্যর্থতা ও সংগঠন চালানোর অদক্ষতায় মাসুল দেওয়ার পর অবশেষে সমহিমায় ফিরতে চলছেন কংগ্রেস সভানেত্রী সোনিয়া গান্ধী৷ দলের অন্দরে পরিবর্তন ঘটিয়ে কংগ্রেসে শুদ্ধিকরণের পথে হাঁটলেন সোনিয়া৷

২০১৯ লোকসভা নির্বাচনকে পাখির চোখ করে বিরোধী ঐক্য গড়ে তুলতে চাইছে কংগ্রেস৷ অবিজেপি শক্তি জোটের নেতৃত্ব দেওয়ার আগে নিজেদের ঘর গোছাতে শুরু করল জাতীয় কংগ্রেস৷ দেশের মানুষের মোন পেতে জনসংযোগ ও রণকৌশল ঠিক করতে বিশেষ কমিটি গঠন করলেন সোনিয়া গান্ধী৷ কংগ্রেসের প্রথম সারির নেতাদের নিয়ে গঠন করা হয়েছে নয়া এই কমিটি৷ জনসংযোগ ও রণকৌশল নির্ধারণ কমিটিতে রাখা হয়েছে গুলাম নবি আজাদ, মল্লিকার্জুন খার্গে, আনন্দ শর্মা, পি চিদম্বরম, মনিশঙ্কর আইয়ার, জয়রাম রমেশ, জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়া, সুস্মিতা দেব, রণদীপ সুরজওয়ালা, রাজীব গৌড়া৷

জাতীয় কংগ্রেসে সূত্রে খবর, সোনিয়ার হতে তৈরি এই কমিটি প্রতিদিন বসে বৈঠকে৷ কোনও ইস্যুতে কংগ্রেস কী অবস্থান হবে তাও নির্ধারিত হবে৷ পাশাপাশি, জনসংযোগ বাড়াতে কী কী পদক্ষেপ নেওয়া হবে তাও ঠিক করবে এই কমিটি৷ নয়া এই কমিটির পরিচালনার করবেন কংগ্রেসের সভানেত্রী সোনিয়া গান্ধী৷

- Advertisement -

গত মে মাসে কংগ্রেসে রদবদল ঘটিয়ে নিস্ক্রিয় কর্মীদের পদ ছাড়ার অনুরোধ জানিয়েছিলেন তিনি৷ ছেলের ঘাড়ে দায়িত্ব চাপিয়ে নিজেও খানিকটা বিশ্রাম নিতে চেয়েছিলেন সোনিয়া৷ কিন্তু, ধারাবাহীর ভাবে কংগ্রেসের খারাপ ফলাফলের জেরে নতুন কমিটি গড়ে দলের লাগাম হাতে নিলেন সোনিয়া৷

 

Advertisement
---