রাহুলের অস্বস্তি বাড়িয়ে সোনিয়ার চিঠিতে স্বস্তি পাচ্ছে কংগ্রেস

লখনউ: পাঁচ বার বিধায়ক হয়েছেন অখিলেশ সিং৷ নামের সঙ্গে জুড়েছে বাহুবলী তকমা৷ সেই তকমাতেও ভরসা নেই কংগ্রেসের৷ অগত্যা রায়বরেলি বিধানসভা কেন্দ্রের ভোটারদের জন্য আবেগতাড়িত চিঠি লিখলেন কংগ্রেস সভাপতি সোনিয়া গান্ধী৷ সেই চিঠি ভোট বাজারে বাজিমাত করবে৷ এমনই ধারণা রায়বরেলির কংগ্রেস নেতা কর্মীদের৷ উত্তরপ্রদেশ বিধানসভা নির্বাচনের চতুর্থ দফায় সবথেকে নজরকাড়া কেন্দ্র রায়বরেলি৷ পারিবারিক ঐতিহ্য মেনে এখানকার সাংসদ খোদ সোনিয়া গান্ধী৷

রায়বরেলি ও আমেথি৷  নামেই তাদের পরিচয়৷ কংগ্রেসের ঘাঁটি৷  উত্তরপ্রদেশের এই দুটি লোকসভা কেন্দ্র বরাবর নজরকাড়া৷ গত লোকসভা নির্বাচনে বিজেপির প্রবল ঝড়েও দুটি লোকসভা কেন্দ্র কংগ্রেস ধরে রাখে৷ সাকুল্যে এই দুটি কেন্দ্রেই জয় পেয়েছিল কংগ্রেস৷ সেই নিরিখে বিধানসভা নির্বাচনে আশাবাদী ‘হাত’ শিবির৷

রায়বরেলি বিধানসভা কেন্দ্রের পাঁচবারের বিধায়ক অখিলেশ সিং৷ বাহুবলী বিধায়ক কংগ্রেস, পিস পার্টি, নির্দল ঘুরে ১৯৯৩ সাল থেকেই জয়ের মুকুট মাথায় নিয়েছেন৷ এবার তার কন্যাকে অদিতি সিংকে প্রার্থী করেছে কংগ্রেস৷

- Advertisement -

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে উচ্চশিক্ষিত অদিতি৷ বাহুবলী বাবার ছবি পাল্টানোর আপ্রাণ চেষ্টা করছেন টেক স্যাভি অদিতি৷ জেতার বিষয়ে নিশ্চিত৷ তাঁর প্রতিদ্বন্দ্বী বিএসপির মহম্মদ শাহবাজ খান৷ লড়াইয়ে রয়েছেন বিজেপির অনিতা শ্রীবাস্তব৷

গত বিধানসভা নির্বাচনে ২৯ হাজারের বেশি ভোটে জয়ী হয়েছিলেন বাহুবলী অখিলেশ সিং৷ এবার সমাজবাদী পার্টির সঙ্গে জোট হওয়ায় শক্তি কিছুটা বাড়বে৷ রায়বরেলিতে জয়ের আশা দেখছে কংগ্রেস৷ এত সবের মধ্যেও খোদ সাংসদ সোনিয়া গান্ধীর অনুপস্থিতি দলকে চিন্তায় ফেলেছিল৷ শেষপর্যন্ত সমর্থকদের মন জয়ে খোলা চিঠি লিখলেন ম্যাডাম সোনিয়া৷  অথচ চিঠিতে নেই সপার প্রতি কোনও বার্তা৷ ফলে অস্বস্তিতে রাহুল গান্ধী৷  কারণ কংগ্রেস সহসভাপতি গায়ের ঘাম ঝরিয়ে সমাজবাদী পার্টির মঞ্চ থেকে মরিয়া লড়াই করতে চাইছেন৷

Advertisement
---