স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: কার ওজন বেশি? বাইচুং ভুটিয়া না কি শোভন চট্টোপাধ্যায়ের? যে বেশি ভারী, বিজেপির দরজা তাঁর জন্যই খুলবে৷

রাজ্য বিজেপির সভাপতি দিলীপ ঘোষ তাঁর ঘনিষ্ঠ মহলে এমন বলেছেন বলে জানা গিয়েছে, অনেকেই বিজেপিতে আসতে চান৷ তবে, ওজন বিচার করেই দলে নেওয়া হবে তাঁদের৷ বিজেপির রাজ্য সভাপতির এই ধরনের মন্তব্যের পরই দলের ভিতরে ও বাইরে জল্পনা তুঙ্গে উঠেছে৷ অন্য দলে অসন্তুষ্ট, দলের ভিতরে কোনঠাসা এমন কারা আছেন? কারা বিজেপিতে আশ্রয় খুঁজছেন?

নিজে মুখে না বললেও, আকারে ইঙ্গিতে দিলীপ ঘোষ বোঝাতে চেয়েছেন, কলকাতা পুরসভার মেয়র শোভন চট্টোপাধ্যায় এবং সদ্য তৃণমূল কংগ্রেস ছেড়ে দেওয়া প্রাক্তন ফুটবলার বাইচুং ভুটিয়ার কথা৷

কিছু দিন আগেই, অধ্যাপক বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়কে নিজের ‘বিপদের বন্ধু’ বলে শোভন চট্টোপাধ্যায় বিপদে পড়েছেন বলে জানা গিয়েছে৷ মেয়রের ‘পাশে নেই’ তাঁর স্ত্রীও৷ সম্প্রতি পঞ্চায়েত নির্বাচনের সমস্ত দায়িত্ব থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে তাঁকে৷ তৃণমূল কংগ্রেসের শক্ত ঘাঁটি দক্ষিণ ২৪ পরগনার দায়িত্বে ছিলেন শোভন চট্টোপাধ্যায়৷ সেখানেও এখন তাঁর বিশেষ ভূমিকা নেই৷

কলকাতার মেয়র অবশ্য রাজনীতির অভিজ্ঞ যোদ্ধা৷ চাপের মুখে এক সময়ের সহযোগী মুকুল রায়ের পথই কি তা হলে ধরতে চাইছেন এখন তিনি? কলকাতার অলিতে-গলিতে মুখরোচক আলোচনা চলছেই৷

ফুটবলের প্রাক্তন ভারত অধিনায়ক বাইচুং ভুটিয়া বাঙালির নয়নের মণি৷ ইস্টবেঙ্গল-মোহনবাগানের গর্ব৷ কিন্তু তৃণমূল কংগ্রেসের প্রতীকে যত বারই ভোটের লড়াইতে নেমেছেন, হারতে হয়েছে তত বারই৷ গত লোকসভা নির্বাচনে দার্জিলিং কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী সুরেন্দ্রজিৎ সিংহ আলুওয়ালিয়া এবং গত বিধানসভা নির্বাচনে শিলিগুড়ি কেন্দ্রে সিপিএম প্রার্থী অশোক ভট্টাচার্যের কাছে পরাজিত হন তিনি৷ একজন সফল ফুটবলার, সফল অধিনায়ক হিসাবে অনেক টানটান উত্তেজনাপূর্ণ ম্যাচে জয় পেয়েছেন বাইচুং ভুটিয়া৷

কিন্তু রাজনীতির ময়দানে অসফল হয়ে কিছু দিন আগেই তৃণমূল কংগ্রেস ছাড়ার কথা টুইটারে ঘোষণা করেছেন তিনি৷ তবে বিজেপির অনেক কর্মীই কিন্তু ভাবতে শুরু করেছেন, ‘পাহাড়ি বিছে’ তাঁর রাজনীতির কেরিয়ারে একটা ‘রি-স্টার্ট’ চাইছেন৷

সম্প্রতি সাংবাদিকরা রাজ্য বিজেপির সভাপতিকে শোভন চট্টোপাধ্যায় এবং বাইচুং ভুটিয়ার ব্যাপারে প্রশ্ন করেছিলেন৷ জানতে চাওয়া হয়, শোভন চট্টোপাধ্যায় বিজেপিতে যোগদানের ইচ্ছা প্রকাশ করেছেন কি না? সহাস্যে দিলীপ ঘোষ বলেন, ‘‘আমার কাছে করেন নি৷ জানি না আপনাদের কাছে করেছেন কি না৷’’ একই সঙ্গে তিনি বলেন, ‘‘অনেকেই আছেন৷ শোভন ছাড়াও তো অনেক লোক আছেন৷ তার থেকে বেশি দামি… আসুক৷ ওপেনলি যখন বলবে তখন আমরা ভেবে দেখব৷’’

খোলোয়াড় বাইচুং ভুটিয়ার থেকে শরীর ও রাজনৈতিক প্রতিপত্তিতে যথেষ্ঠ ভারী শোভন চট্টোপাধ্যায়৷ তরুণ বয়স থেকেই রাজনীতি করছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের এই অনুগত সৈনিক৷ শোভনের চট্টোপাধ্যায়ের চোখে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তাঁর ‘মা’৷ রাজনৈতিক কর্মী হিসাবে শোভন চট্টোপাধ্যায়ের জনপ্রিয়তা যথেষ্ঠ৷ কিন্তু, ‘মা’য়ের বিরুদ্ধাচরণ করবে অনুগত ‘ছেলে’, এ কথা তৃণমূল কংগ্রেসের অতিবড় শত্রুও ভাবতে পারছেন না বলে জানা গিয়েছে৷

©Kolkata24x7 এই নিউজ পোর্টাল থেকে প্রতিবেদন নকল করা দন্ডনীয় অপরাধ৷ প্রতিবেদন ‘নকল’ করা হলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে ----
----