নয়াদিল্লি:  হাতে আর কয়েক মাস বাকি। এরপরেই লোকসভা ভোটের নির্ঘন্ট প্রকাশ। আর তার আগে মধ্যবিত্ত মানুষের ভোট ধরতে একগুচ্ছ জনদরদি ঘোষণা করতে পারেন মোদী। এমনটাই মনে করা হচ্ছে। যার মধ্যে গুরুত্বপূর্ণ একাধিক করের ছাড়। কিন্তু একদিকে করের ছাড় ঘোষণা করা হলেও সাধারণ মানুষের স্বস্তি কাটছে না।

কারণ সুদের হার কমাতে পারে ভারতীয় রিজার্ভ ব্যাংক। ২০১৮-২০১৯ অর্থবর্ষের শেষের দিকে এসে এই চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিতে পারে রিজার্ভ ব্যাংক। যদিও এখনও পর্যন্ত এই বিষয়ে কিছুই বলেনি রিজার্ভ ব্যাংক অফ ইন্ডিয়া। তবে সুদের হার কমানো নিয়ে বড় কিছু সিদ্ধান্ত রিজার্ভ ব্যাংক নিতে পারে বলে ইতিমধ্যে শুরু হয়েছে গুঞ্জন।

মুম্বইয়ের AMBIT Capital Pvt-এর অনুমান ফেব্রুয়ারির পলিসি মিটিংয়ে ২৫ বেসিস পয়েন্ট কমার সম্ভাবনা রয়েছে। কারও কারও মত ৫০ বেসিস পয়েন্ট পর্যন্ত কমতে পারে সুদের হার।

AMBIT-এর অর্থনীতিবীদ ঋতিকা মুখোপাধ্যায় এবং সুমিত শেখরের বক্তব মোতাবেক, ২০১৮ সালের ডিসেম্বর পর্যন্ত রিজার্ভ ব্যাংকের কড়া পলিসির যুক্তিসঙ্গত হলেও, বর্তমানে যেখানে মুদ্রাস্ফীতি নিম্নমুখী সেখানে নীতিতে পরিবর্তন আনা প্রয়োজনীয় হয়ে পড়েছে। AMBIT-এর তরফে এও জানানো হয়েছে আগামী বৈঠকে নীতি পরিবর্তন করবে RBI। ‘calibrated tightening’-এর পরিবর্তে তারা পরবর্তী অর্থবর্ষ পর্যন্ত ‘neutral’ নীতি গ্রহণ করবে।

উল্লেখ্য এই প্রসঙ্গে বলে রাখা প্রয়োজন রিজার্ভ ব্যাংকের গর্ভনর পদে আসার পর শক্তিকান্ত দাসের এই বৈঠক হবে গুরুত্বপূর্ণ।