ফিরেও ফিরলেন না সৃঞ্জয়-দেবাশিস

কলকাতা: সাংবাদিক সম্মেলন করে নাটকীয়তার সঙ্গে মোহনবাগানের সঙ্গে প্রশাসনিক সম্পর্কে দাড়ি টেনেছিলেন সৃঞ্জয়-দেবাশিস৷ সমর্থকদের সঙ্গেই ক্লাব কর্ণধার অঞ্জন মিত্রের তরফেও ছিল পদে ফিরে আসার অনুরোধ৷ সৃঞ্জয়-দেবাশিস ফিরলেন বটে আবার ফিরলেনও না৷

১২ মার্চ মোহনবাগান ক্লাবের সহ সচিব ও অর্থ সচিবের পদ থেকে ইস্তফা দিয়েছিলেন সৃঞ্জয়-দেবাশিস৷ সাংবাদিক সম্মেলন করে এই দুই প্রাক্তন ক্লাব কর্তা জানিয়েছিলেন বাগান সচিব অঞ্জন মিত্রের সঙ্গে সংঘাতের জেরেই পদত্যাগ করলেন তাঁরা৷

আরও পড়ুন: বাগানের প্রস্তুতিতে হাজির পদত্যাগী সৃঞ্জয়-দেবাশিস

দত্ত-বসু জুটির পদত্যাগের পর বাগান সচিব অঞ্জন মিত্র জানিয়েছিলেন ‘মিটিংয়ে ওদের ডেকেছি৷’ সঙ্গেই আলোচনার মাধ্যমে সব মিটিয়ে ফেলার আশ্বাস দিয়ে রেখেছিলেন সবুজ মেরুন কর্ণধার৷আমন্ত্রন মত শনিবার বিকেলে সবুজ মেরুন শিবিরে মিটিয়েং উপস্থিত হন প্রাক্তন অর্থ সচিব দেবাশিস দত্ত এবং সহ সচিব সৃঞ্জয় বসু৷চলে লম্বা মিটিং৷কিন্তু সেখানে সচিব ও বাকি কর্মকর্তাদের তরফে বারবার অনুরোধ করা সত্ত্বেও নিজেদের পদে ফিরতে ফিরে যেতে রাজি হননি সৃঞ্জয়-দেবাশিস৷

মিটিং শেষে সৃঞ্জয় বসু সংবাদমাধ্যমেকে জানান , ‘ফিরে যাবার কোন প্রশ্নই আসছে না৷ ফিরে আসার জন্য পদ ছাড়িনি৷ মিটিংয়ে একটা নতুন কমিটি গড়ার কথা বলেছি যারা টিমের পর্যবেক্ষক হিসেবে কাজ করবে৷ দলের ভালো মন্দ দেখবে৷ সেখানে যদি আমাদের সদস্য হিসেবে রাখে তাহলে কোন অসুবিধে নেই৷’

আরও পড়ুন: আইপিএলের আগে বিশ্ব রেকর্ড ঋদ্ধিমানের

অনেকদিন ধরে ক্লাবে দায়িত্বে থাকা সৃঞ্জয়-দেবাশিস সবুজ মেরুনের সমস্ত রকমের পদ থেকে সরে যাওয়ার সময় জানিয়েছিলেন সিদ্ধান্তটা অত্যন্ত বেদনার ৷মানসিক ভাবে আর ক্লাবের দায়িত্ব থাকা যাচ্ছিল না বলেও জানিয়েছেন তাঁরা৷ দুই কর্তার পদত্যাগ করায় অবশ্য দলের কোনও ক্ষতি হবে না বলে মত ছিল দুজনের৷ সুপার কাপে দল যাতে কোনও সমস্যায় না পরে সেই দিকগুলো দেখেই পদত্যাগ করলেন বলে মন্তব্য করেছিলেন তাঁরা৷

মিটিংয়ের আগে শনিবার সকালে সল্টলেক সংলগ্ন মাঠে সবুজ মেরুনের প্র্যাকটিসে গিয়ে ফুটবলাদের উৎসাহিত করেন সৃঞ্জয় ও দেবাশিস৷ সুপার কাপ জিততেই হবে বলে ফুটবলারদের তাতান তাঁরা৷এদিন বরানগরের একটি ক্লাবের সঙ্গে প্র্যাকটিস ম্যাচে ছ’টি গোল করে সবুজ মেরুনের ডিকা আক্রমরা৷

আরও পড়ুন: ১৩ মিনিটের ব্রাজিল ঝড়ে উড়ে গেল রাশিয়া 

 

----
-----