স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: মাঝের হাট ব্রিজ ভেঙে ফেলার সিদ্ধান্ত নিতে চলেছে রাজ্য সরকারের। সেখানে নতুন ব্রিজ তৈরির পরিকল্পনা নেওয়া হচ্ছে।

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, মুখ্যসচিব মলয় দে’কে বিষয়টি নিয়ে রিপোর্ট দিতে বলেছিলেন। নিজের রিপোর্টে মুখ্যসচিব পরিষ্কার জানিয়েছেন, ওই ব্রিজ ভেঙে ফেলা ছাড়া আর কোনও উপায় নেই।

মুখ্যসচিব আরও জানিয়েছেন, পুরো ঘটনাটি ঘটেছে পূর্ত দফতরের গাফিলতির জন্য। অবে অবশ্য মেট্রো রেলেরও কিছু দায় রয়েছে বলে ওই রিপোর্টে জানানো হয়েছে।

আগামী এক বছরের মধ্যেই নতুন ব্রিজ তৈরি করে ফেলতে চায় রাজ্য সরকার। তার আগে রেলের সঙ্গে কথা বলছে রাজ্য, যাতে দুর্ঘটনাস্থলের পাশে একটি লেবেল ক্রসিং তৈরি করে গাড়ি পারাপার করার ব্যবস্থা করা যায়। এর জন্য যে কোনও রকমের অর্থসাহায্যও করতে প্রস্তুত রাজ্য।

কলকাতার সঙ্গে দক্ষিণ ২৪ পরগনার সংযোগকারী মূল রাস্তা ডায়মন্ড হারবার রোড৷ আর এই রোডের ওপরই রয়েছে মাঝেরহাট ব্রিজ৷ যা কার্যত কলকাতার প্রবেশ পথ৷ প্রতিদিন এই ব্রিজ দিয়ে দক্ষিণ ২৪ পরগনা থেকে হাজার হাজার মানুষ যাতায়াত করেন৷ চলাচল করে প্রচুর বাস ও অন্যান্য যানবাহন৷

স্বাভাবিকভাবেই, ওই রাস্তায় তৈরি হচ্ছে ব্যাপক যানজট। বিকল্প রাস্তা বের করা হয়েছে। আরও একাধিক রাস্তা বের করার চেষ্টা চলছে।

গত ৪ সেপ্টেম্বর বিকেলে হঠাত্ই হুড়মুড়িয়ে ভেঙে পড়ে মাঝেরহাট ব্রিজের একাংশ৷ রেললাইনের পাশে খালের ওপরের অংশ ভেঙে পড়ে নীচে। সে সময় ব্রিজের ওপর দিয়ে বেশ কয়েকটি গাড়ি যাচ্ছিল৷

----
--