ছাড় পেতে এপ্রিলের শেষে ইউজিসিতে যাবে বিশ্ববিদ্যালয়গুলির দল

দিপালী সেন, কলকাতা: দূরশিক্ষায় ছাড় পেতে এপ্রিলের শেষেই বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন (ইউজিসি)-এ যেতে পারে এ রাজ্যের বিশ্ববিদ্যালয়গুলির এক প্রতিনিধি দল৷ মঙ্গলবার এমনই জানালেন রবীন্দ্রভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য সবস্যাচী বসু রায়চৌধুরী৷

গত ২৭ মার্চ উচ্চ শিক্ষা সংসদের বৈঠক হয়৷ ওই বৈঠকে ছিলেন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় সহ বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যরা৷ ওই বৈঠকেই দূরশিক্ষায় ইউজিসির নতুন নিয়ম নিয়ে আলোচনা হয়৷ সেদিন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় বলেছিলেন, ‘‘দূরশিক্ষা নিয়ে ইউজিসির আইনে আমারা ক্ষতিগ্রস্ত হব৷ কারণ ডিসট্যান্স এডুকেশন বন্ধ হয়ে গেলে কয়েক লক্ষ ছাত্র-ছাত্রী বঞ্চিত হবেন৷’’

একই সঙ্গে শিক্ষামন্ত্রী বলেছিলেন, ‘‘রবীন্দ্রভারতী বিশ্ববিদ্যালয়, কল্যাণী বিশ্ববিদ্যালয়, নেতাজি সুভাষ মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়, বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয়৷ যাদের কাছে দূরশিক্ষা আছে, তারা সবাই মিলে একটা দল মানবসম্পদ মন্ত্রক ও ইউজিসিতে যাবে সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করার জন্য৷’’

- Advertisement -

মঙ্গলবার বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনে যাওয়ার বিষয়ে রবীন্দ্রভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যর কাছে জানতে চাওয়া হলে তিনি বলেন, ‘‘শিক্ষামন্ত্রী আমাদের বলেছেন ইউজিসিতে গিয়ে কথা বলতে৷ তাঁর পরামর্শ অনুযায়ী আমরা উপাচার্যরা ঠিক করেছি যাব৷ কিন্তু ওখানে গিয়ে চেয়্যারম্যান বা উচ্চপদস্থ কারও সঙ্গে কথা বলতে হবে৷ তাই আমরা তাঁদের সঙ্গে কথা বলে এই মাসের শেষে যাওয়ার জন্য চেষ্টা করছি৷’’

একই সঙ্গে তিনি জানিয়েছেন, মোট ছ’টি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যরা এই বিষয়ে কথা বলতে দিল্লি রওনা দেবেন৷ এই বিশ্ববিদ্যালয়গুলির মধ্যে রয়েছে, রবীন্দ্রভারতী বিশ্ববিদ্যালয়, কল্যাণী বিশ্ববিদ্যালয়, বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয়, বিদ্যাসাগর বিশ্ববিদ্যালয়৷ ন্যাক-এর মূল্যায়ণে এই বিশ্ববিদ্যালগুলির সিজিপিএ আবশ্যিকের তুলনায় কম৷

চলতি বছরের ফেব্রুয়ারি মাসের শুরুতেই দূরশিক্ষা সংক্রান্ত বিধি ২০১৭ সংশোধন করে নতুন বিধি ঘোষণা করে ইউজিসি৷ যেখানে স্পষ্টভাবে বলা হয়েছে, দূরশিক্ষার জন্য যে কোনও বিশ্ববিদ্যালয়কে ন্যাকের মূল্যায়ণে ন্যূনতম ৩.২৬ থাকতে হবে৷ কিন্তু, পশ্চিমবঙ্গের অধিকাংশ বিশ্ববিদ্যালয়ে দূরশিক্ষা থাকলেও ন্যাকের এই রেটিং নেই৷ তাই ওই বিশ্ববিদ্যালয়গুলি ২০১৮-’১৯ শিক্ষাবর্ষ থেকে হারাতে চলেছে তাদের দূরশিক্ষা ব্যবস্থা৷ এ ক্ষেত্রে বহু পড়ুয়া বিপাকে পড়তে চলেছেন বলে আশঙ্কা বাড়ছে বিভিন্ন মহলে৷

রবীন্দ্রভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের ৩.১০, কল্যাণী বিশ্ববিদ্যালয়ের ৩.১২, বিদ্যাসাগর বিশ্ববিদ্যালয়ের ২.৮৬ ন্যাক সিজিপিএ৷ বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয়ের ন্যাক রেটিংও আবশ্যিক ৩.২৬-এর তুলনায় কম৷ অন্যদিকে, নেতাজি সুভাষ মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় ন্যাক স্বীকৃত নয়৷ তাই বর্তমানে দূরশিক্ষা নিয়ে অনিশ্চয়তার মধ্যে রয়েছে এই বিশ্ববিদ্যালয়গুলি৷

Advertisement ---
---
-----