স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: বাধ্যতামূলক বদলী নীতি প্রত্যাহারের দাবিতে বিকাশ ভবন অভিযান করল মাধ্যমিক শিক্ষক ও শিক্ষাকর্মী সমিতি (এসটিইএ)৷ বুধবার বিকাশ ভবন গিয়ে শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের কাছে নিজেদের দাবি সম্বলিত একটি স্মারকলিপিও জমা দেন বিক্ষোভকারীরা৷

এদিনের বিক্ষোভ কর্মসূচিতে আরও কয়েকটি দাবি তোলা হয় সংগঠনের পক্ষ থেকে৷ যেগুলির মধ্যে অন্যতম ছিল, অবিলম্বে বিদ্যালয়গুলিতে শিক্ষক ও শিক্ষাকর্মী নিয়োগ করতে হবে রাজ্য সরকারকে৷

মাধ্যমিক শিক্ষক ও শিক্ষাকর্মী সমিতির সাধারণ সম্পাদক বিশ্বজিৎ মিত্র বলেন, ‘‘সম্প্রতি বিদ্যালয় শিক্ষা দফতর অত্যন্ত অযৌক্তিকভাবে পুরুলিয়া ও দার্জলিংয়ের চারজন শিক্ষককে বাসস্থান থেকে বহুদূরের জেলায় বদলী করে৷ এর ফলে সংশ্লিষ্ট বিদ্যালয়গুলিতে পঠন-পাঠন প্রক্রিয়া অত্যন্ত বিঘ্নিত হচ্ছে৷ অবিলম্বে এই বদলীর আদেশ প্রত্যাহার করতে হবে৷’’ শুধু চারজন শিক্ষকের নয়, বাধ্যতামূলক বদলানীতির প্রত্যাহারের দাবিও তোলা হয়েছে এদিনের বিক্ষোভ কর্মসূচিতে৷

এদিনের বিক্ষোভের আরও একটি দাবি ছিল, দ্রুত বিদ্যালয়গুলিতে প্রয়োজনীয় শিক্ষক ও শিক্ষাকর্মী নিয়োগ করতে হবে রাজ্য সরকারকে৷ এ ছাড়া, প্রথম শ্রেণি থেকে পাশ-ফেল প্রথা ফিরিয়ে আনার দাবিও তোলেন বিভিন্ন জেলা থেকে আগত সংগঠনের সদস্যরা৷ এবিষয়ে সংগঠনের সহ সাধারণ সম্পাদক নীলকান্ত ঘোষ বলেন, ‘‘বহুবার প্রতিশ্রুতি দেওয়া রাজ্য সরকার পাশ-ফেল ফিরিয়ে নিয়ে আসার জন্য কোনও উদ্যোগ নিচ্ছেন না৷ একইভাবে শিক্ষক নিয়োগ প্রসঙ্গেও তাঁরা চূড়ান্ত অনীহা প্রকাশ করছেন৷ ফলে, বিদ্যালয়গুলিতে পঠন পাঠন প্রক্রিয়া চূড়ান্তভাবে অবহেলিত হচ্ছে৷ এই সমস্যাগুলির অবিলম্বে সুরাহা করতে হবে৷’’

এদিনই পাশ-ফেল প্রথা ফিরিয়ে আনার বিষয়ে রিপোর্ট জমা দেয় রাজ্য সরকার গঠিত পাঁচ সদস্যের কমিটি৷ এই কমিটি পঞ্চম থেকে অষ্টম শ্রেণি পর্যন্ত মোট চারটি শ্রেণিতে পাশ-ফেল প্রথা ফিরিয়ে নিয়ে আসার সুপারিশ করে৷ এ ছাড়া, পড়য়াদের পাশ-ফেলের ক্ষেত্রে শিক্ষক-শিক্ষিকাদের ভূমিকা নিয়েও কিছু সুপারিশ করে এই কমিটি৷

----
--