নাইটক্লাবের দারোয়ানকে গালিগালাজ করেছিলেন স্টোকস

লন্ডন: ২০১৭ সেপ্টেম্বরে ব্রিস্টলে একটি বারে অভদ্র আচরণ এবং মারামারি করার জন্য গ্রেফতার হন বেন স্টোকস৷ যার জন্য নির্বাসনের মুখে পড়ে শেষ অ্যাসেজেও ছিলেন না ইংল্যান্ডের এই তারকা অলরাউন্ডার৷ এবার সেই বিতর্ক নতুন মাত্রা পেল ব্রিস্টলের নাইটক্লাবের দারোয়ানের কথায়৷ কোর্টে সাক্ষ্য দিতে গিয়ে নাইটক্লাবটির দারোয়ান স্পষ্টই জানান জোর করে নাইট ক্লাবে ঢুকতে চাইছিলেন স্টোকস এবং হ্যালস৷ বাজে ভাষাও ব্যবহার করেছিলেন দারোয়ান এবং ভেতরে উপস্থিত নাইটক্লাব মেম্বারদের প্রতি৷

আরও পড়ুন:ফাইনাল ম্যাচ নিয়ে সিন্ধুর পাশে পাড়ুকোন

এই অভিযোগে গত বছরই গ্রেফতার হয়েছিলেন ইংল্যান্ড অল-রাউন্ডার বেন স্টোকস৷ ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে তৃতীয় ওয়ান ডে জয়ের পর ব্রিস্টলের ঘটনার জন্য গ্রেফতার হন স্টোকস৷ এক রাত্রি লক-আপে কাটানোর পর তখন যদিও ছাড়া পেয়ে যান ইংরেজ অল-রাউন্ডার৷ একই ঘটনায় গ্রেফতার হয়েছিলেন ইংল্যান্ড ওপেনিং ব্যাটসম্যান অ্যালেক্স হ্যালস৷ তিনিও পরে ছাড়া পেয়ে যান৷ এই ঘটনায় ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে ওয়ান ডে সিরিজের শেষ দু’টি ম্যাচে নির্বাসিত স্টোকস ও হ্যালস৷

- Advertisement -

আরও পড়ুন:বাগানে ফিরেই হ্যামলিনের বাঁশিওয়ালা মেহতাব

সামারসেট পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে নাইটক্লাবটির দারোয়ান অ্যান্ড্রু কানিংহ্যাম ক্রিকেটের ভক্ত নন৷ তাই তিনি স্টোকস কিংবা হ্যালসকে চিনতেন না৷ নাইট ক্লাবে ঢোকার সময় দারোয়ানের কাছে বাধা পান৷ প্রথমে দারোয়ানকে ঘুঁষ দিয়ে নাইটক্লাবে ঢোকার চেষ্টা করেন, ব্যর্থ হয়ে দারোয়ানকে গালিগালাজ করেন তাঁদের চিনতে না পারার জন্য৷

আরও পড়ুন:অসুস্থ হেনরি, সেকারণেই শুরু থেকে খেললেন ডিকা

এর আগেও ‘ব্যাড বয়’-এর খাতায় নাম লিখিয়েছিলেন ইংল্যান্ড টেস্ট দলের ভাইস-ক্যাপ্টেন স্টোকস৷ ২০১২-তে রাত্রিতে পুলিশের সঙ্গে বচসার জেরে আটক হয়েছিলেন৷ পরের বছর লেট-নাইটে মদ্যপানের জন্য ইংল্যান্ড লায়ন্স ট্যুর থেকে দেশে ফিরেছিলেন স্টোকস৷ ২০১৪ টি-২০ বিশ্বকাপে ঘুঁষি মেরে লকার ভেঙে দল থেকে বাদ পড়েছিলেন ইংল্যান্ড অল-রাউন্ডার৷

আরও পড়ুন:সাত রঙ ফিকে করে জয় ছিনিয়ে নিল সবুজ-মেরুন

Advertisement ---
---
-----