মেহুল চোকসির গতিবিধি আটকান, অ্যান্টিগুয়াকে আবেদন ভারতের

নয়াদিল্লি : জলে, স্থলে ও আকাশে মেহুল চোকসির গতিবিধি আটকানোর আবেদন করল ভারত৷ অ্যান্টিগুয়াতে যাতে অবাধে পিএনবি কান্ডের অন্যতম অভিযুক্ত ব্যবসায়ী চোকসি ঘুরে বেড়াতে না পারে, তার জন্যই এই আবেদন করল ভারত৷

গত বছরই পলাতক এই হিরে ব্যবসায়ী অ্যান্টিগুয়ার নাগরিকত্ব পান৷ তিনি যাতে কোনওভাবেই অ্যান্টিগুয়ার মাটি, জল ও আকাশসীমা ব্যবহার করে অবাধে ঘুরে বেড়াতে না পারেন তার আরজি জানানো হয়েছে৷ একই রকম ভাবে বারবুডাতেও চোকসির গতিবিধির ওপরে নিষেধাজ্ঞা আরোপের আবেদন জানিয়েছে নয়াদিল্লি৷

এর আগে, অ্যান্টিগুয়াতে রয়েছেন মেহুল চোকসি বলে খবর পায় বিদেশ মন্ত্রক৷ তার পরেই সতর্ক করা হয় জর্জ টাউনের ভারতীয় দূতাবাসকে৷ সেখান থেকে খবর যায় অ্যান্টিগুয়া ও বারবুডাতে৷ লিখিত আকারে ও মৌখিক ভাবে মেহুল চোকসির সম্পর্কে জানানো হয়৷ তাকে আটক করার আবেদনও করা হয়েছে ভারতের পক্ষ থেকে৷

- Advertisement -

পড়ুন: বহাল তবিয়তে স্থানীয় পাসপোর্ট নিয়ে ঘুরে বেড়াচ্ছে মেহুল

চলতি বছরের ১৫ জানুয়ারি দেশ থেকে পালিয়ে অ্যান্টিগুয়াতে আশ্রয় নিয়েছিল পলাতক হিরে ব্যবসায়ী মেহুল চোকসি। তারপর ২৯ জানুয়ারি সিবিআই মেহুল চোকসির বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে তদন্ত শুরু করে। তবে অ্যান্টিগুয়া সরকার এর আগে জানায় ভারতের হাতে পিএনবি কাণ্ডে অভিযুক্ত মেহুল চোকসিকে তুলে দিতে রাজি তারা৷ এর জন্য ভারতের কাছ থেকে ‘বৈধ আবেদন’ দাবি করেছে সেই দেশের সরকার।

সাড়ে ১৩ হাজার কোটি টাকার জালিয়াতির মামলায় নাম জড়িয়েছে মেহুল চোকসি ও তাঁর ভাইপো নীরব মোদির। দু’‌জনেই দেশ ছেড়ে পলাতক। তাই অ্যান্টিগুয়া ও বারবুডা সরকারকে অনুরোধ করেছে ভারত সরকারের বিদেশমন্ত্রক। যদিও এই অনুরোধের কোনও উত্তর এখনও মেলেনি।‌‌

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, ইচ্ছাকৃতভাবে অ্যান্টিগুয়ার নাগরিকত্ব নিয়েছেন চোকসি৷ কারণ, এই দেশের সঙ্গে ভারতের প্রত্যর্পণ চুক্তি নেই। আরও একটি কারণে এই দেশের নাগরিকত্ব নিয়েছেন চোকসি বলে মত বিশেষজ্ঞদের৷ তাঁরা বলছেন অ্যান্টিগুয়ার পাসপোর্ট থাকলে বিশ্বের মোট ১৩২টি দেশে যেতে কোনও ভিসা লাগে না।

Advertisement
---