জেলায় গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব থামান, মমতার মন্ত্রীকে পরামর্শ সুজনের

কোচবিহার: তৃণমূল মন্ত্রী রবীন্দ্রনাথ ঘোষকে জেলায় গোষ্ঠীকোন্দল থামানোর পরামর্শ দিলেন সুজন চক্রবর্তী৷ কোচবিহার জেলা তৃণমূলের সভাপতি রবীন্দ্রনাথ ঘোষ৷ জেলায় তাঁর দলের বিরুদ্ধে রোজই গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের অভিযোগ ওঠে৷ রবিবার কোচবিহার জেলা সিপিএমের কার্যালয়ে এক সাংবাদিক সন্মেলনে সুজন চক্রবর্তী বলেন, ‘‘কোচবিহার জেলায় তৃণমূলের গোষ্ঠীকোন্দলের জন্য আখেড়ে বিজেপিরই সুবিধা হচ্ছে৷ কাজেই এই কোন্দল বন্ধ হোক৷’’

আরও পড়ুন: মুর্শিদাবাদে বিজেপির পরামর্শদাতা অধীর, বলছেন শুভেন্দু

এদিন ছাত্রনেতা মাজিদ আনসারির খুনের ঘটনার নিন্দা করে সুজন বলেন, ‘‘এই ঘটনায় শান্ত কোচবিহারের ঐতিহ্য নষ্ট হয়েছে৷’’ এদিন তিনি ফোনে মাজিদ আনসারির পরিবারের সঙ্গে কথা বলেন৷ মাজিদের মৃত্যুতে সমবেদনা জানিয়ে তাঁর পরিবারের পাশে থাকার আশ্বাস দেন৷

- Advertisement -

জেলাজুড়ে তৃণমূল কংগ্রেসের গোষ্ঠীকোন্দল নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করে তিনি বলেন, এর ফলে সাধারণ মানুষ সঙ্কটে পড়ছেন৷ এই পরিস্থিতির জন্য দায়ী জেলা তৃণমূল কংগ্রেস নেতৃত্ব। তিনি মাজিদ হত্যায় অভিযুক্ত মুন্না খানের সঙ্গে উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন মন্ত্রীর ঘনিষ্ঠতা নিয়েও প্রশ্ন তোলেন৷

আরও পড়ুন: ৪২’র সঙ্গে শূন্য জুড়ে ৪২০ হতে পারবে তৃণমূল: অধীর

বলেন, মুন্না খানের মত অপরাধী রয়েছে রবীন্দ্রনাথবাবু যার গলা জড়িয়ে রয়েছেন৷ সুজন চক্রবর্তীর বক্তব্য প্রসঙ্গে পাল্টা রবীন্দ্রনাথ ঘোষ বলেন, “সুজনবাবু নিজেই একজন গুন্ডা, হার্মাদ। ওনাদের দলেই গুন্ডা হার্মাদরা আছে। তৃণমূল কংগ্রেসে কোনও গুন্ডা নেই৷’’

Advertisement ---
-----