বিতর্কিত অযোধ্যা মামলার ‘শেষ শুনানি’ শুরু

নয়াদিল্লি: দেশের সবথেকে বেশি চর্চিত ও বিতর্কিত অযোধ্যা মামলার অন্তিম শুনানি হতে চলেছে সুপ্রিম কোর্টে৷ আদালত এই মামলায় রোজই শুনানি করতে পারে৷ যে মামলাকে কেন্দ্র করে দেশে সবথেকে বড় বিতর্ক হয়েছে সেই মামলার শুনানি করবেন সুপ্রিম কোর্টের তিন বিচারপতির বিশেষ বেঞ্চ৷ ১৬৪ বছরের পুরনো এই মামলা৷ এই মামলার সঙ্গে যুক্ত ভিন্ন ভিন্ন ভাষায় অনুবাদ করা ৯হাজার পাতার পুরোটাই দেখবে শীর্ষ আদালত৷ মুখ্য বিচারপতি দীপক মিশ্রের বেঞ্চ মামলার নিয়মিত শুনানি করবেন৷

অযোধ্যা মামলার এই বিশেষ বেঞ্চে প্রধান বিচারপতি ছাড়াও রয়েছেন বিচারপতি অশোক ভূষণ ও বিচারপতি আব্দুল নজির৷ মনে করা হচ্ছে এই মামলার যে সব তথ্য রয়েছে তার প্রায় পুরোটাই অনুবাদ করা হয়ে গিয়েছে৷ সুন্নি ওয়াকফ বোর্ডের তরফে বলা হয় অযোধ্যা মামলার যত তথ্য রয়েছে তা অনুবাদ করার সময় শুনানির দিন পিছিয়ে দেওয়া হবে না৷ তার পাশাপাশি আদালতও জানায় ৮ই ফেব্রুয়ারির পর শুনানির দিন পেছোনো হবেনা৷

প্রাচীন অযোধ্যা নগরী পুরাণ খ্যাত৷ সরয়ূ নদীর তীরে এই নগরীতেই রামের জন্ম৷ এদিকে অযোধ্যায় থাকা বাবরি মসজিদ ধংস ঘিরে ১৯৯২ সালে দেশ উত্তপ্ত হয়ে গিয়েছিল৷ শুরু হয়েছিল গোষ্ঠী সংঘর্ষ৷ যার পর থেকেই ভারতীয় রাজনীতিতে উগ্র হিন্দুত্ববাদী শক্তির বাড়বাড়ন্ত৷ তাকে রুখতে পাল্টা ইসলামিক কট্টরপন্থী সংগঠনও নিজেদের শক্তি বাড়িয়ে নেয়৷

- Advertisement -

জানা গেছে সু্প্রিম কোর্টের তিন বিচারপতির এই বিশেষ বেঞ্চ প্রতিদিন তিন ঘণ্টা করে এই মামলার শুনানি করবেন৷ বিশেষজ্ঞদের ধারণা, এই ৩০ দিনে সব পক্ষেরই শুনানি শেষ করা যাবে এবং ১৬ই মে গরমের ছুটি শুরু হওয়ার আগেই সুপ্রিম কোর্টের এই বিশেষ বেঞ্চ শুনানি শেষ করতে পারবে৷

২০১৭র ডিসেম্বরে এই তিন বিচারপতি অযোধ্যা মামলার শুনানি শুরু করেছিলেন৷ আদালত সব পক্ষকেই স্পষ্ট জানায় ৮ই ফেব্রুয়ারি শুনানির দিন ধার্য হয়েছে এর থেকে আর পিছিয়ে যাবেনা শুনানির তারিখ৷ এই মামলার সঙ্গে যুক্ত ৯ হাজার পাতার নথি ও ৯০ হাজার পাতায় নথিভুক্ত করা সাক্ষ্য পালি, ফারসি সংস্কৃত আরবি সহ আরও বিভিন্ন ভাষায় রয়েছে৷ সেই ভিন্ন ভাষার সমস্ত নথির অনুবাদ করার আবেদন জানায় সুন্নি
ওয়াকফ বোর্ড৷

Advertisement ---
---
-----