‘তৃণমূল সরকার জনতার সরকার’

মেদিনিপুর:  মানুষের মধ্যে বিভেদ না দেখে পুরসভা নির্বাচনের প্রচারে দলীয় প্রার্থীদের প্রত্যেকের বাড়িতে যাওয়ার নিদান দিলেন তৃণমূলের লোকসভা সদস্য শুভেন্দু অধিকারী৷‌তিনি বলেন, এখন বাংলায় একমাত্র শক্তি তৃণমূল৷‌ বিরোধী বলতে কিছু নেই৷‌ তৃণমূলের সরকার জনতার সরকার৷‌ এই সরকারের আমলে মানুষের মধ্যে কোনও বিভেদ দেখা চলবে না৷‌ পুরনির্বাচনের প্রচারে পুরসভার ১৪টি ওয়ার্ডের প্রত্যেক বাসিন্দার বাড়িতে প্রার্থীদের যেতে হবে৷‌ পরিবর্তনের আমলে বাংলা-সহ এগরা পুরসভার সমস্ত উন্নয়নের খতিয়ান তুলে ধরে তৃণমূল প্রার্থীদের নির্বাচিত করার আবেদন জানাতে হবে৷‌ এক্ষেত্রে সমস্ত দ্বন্দ্ব ভুলে এলাকার নেতৃত্বদের ঐক্যবদ্ধ ভাবে প্রচারে শামিল হওয়ারও আবেদন জানান তিনি৷‌ জনতার উদ্দেশে তিনি বলেন, তৃণমূলের হাতে পুরসভার ক্ষমতা থাকলেও বিরোধীদের দখলে ছিল বেশকিছু ওয়ার্ড সেই সমস্ত ওয়ার্ডে লক্ষ্য করবেন উন্নয়নের বহু খামতি আছে৷‌ উন্নয়নের নাম করে ওই সমস্ত ওয়ার্ডে শুধুই স্বজনপোষণ হয়েছে৷‌ তাই উন্নয়নের জন্য আপনারা এবার লক্ষ্য রাখুন বিরোধীশূন্য পুরসভা গড়ার৷‌ এক্ষেত্রে তৃণমূলের বিরুদ্ধে বিরোধীদের সমস্ত কুৎসা ও অপপ্রচারকে আমল না দেওয়ার আবেদন জানান তিনি৷‌ ( হেভিওয়েট নেতা)
অন্যদিকে, দলের আর এক সাংসদ শিশির অধিকারী বলেন, দলের মধ্যে অনেকেই আছেন যারা উসকানি দিয়ে বিরোধীদের জমি শক্ত করার কাজ করছেন৷‌ তাঁদের বলছি আপনারা সংযত হোন৷‌ তা না হলে দল ব্যবস্থা নেবে৷‌ পুরনির্বাচনে কোনও দ্বন্দ্ব বরদাস্ত করা হবে না৷‌ বাড়াবাড়ি করলে ঠাঁই হবে না তৃণমূলে৷‌ আর এই কথা মাথায় রেখে দ্বন্দ্ব ভুলে এলাকার সমস্ত নেতৃত্বকে পুরপ্রচারে নামার নির্দেশ দেন তিনি৷‌ সভায় দুই সাংসদই এগরা পুরসভার ১৪ ওয়ার্ডের দলের ১৪ জন প্রার্থীকে উত্তরীয় পরিয়ে, পরিচয় করে দেন সভায় উপস্থিত জনতার সঙ্গে৷‌ সভায় উপস্থিত ছিলেন দুই বিধায়ক সমরেশ দাস, অর্ধেন্দু মাইতি-সহ এলাকার অন্য নেতৃত্বরা৷‌

Advertisement
---