মালদহে হারানো মাটি শক্ত করতে আসরে শুভেন্দু অধিকারী

মালদহ: ফের কেন্দ্রের বিজেপি সরকারকে নিশানা করলেন রাজ্যের পরিবেশ ও পরিবহণ মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী৷ মালদহের বামনগোলা ব্লকের পাকুয়াহাট এলাকায় আয়োজিত এক জনসভায় ক্ষমতাসীন মোদী সরকারকে কার্যত তুলোধনা করলেন তিনি৷ তাঁর বক্তব্য ‘নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র সহ ডিজেল-পেট্রোলের মূল্যবৃদ্ধির রুখতে গেলে মোদী সরকারকে হারাতে হবে। এই লক্ষ্য নিয়েই ভোটের ময়দানে নামতে হবে।’

একই সাথে নাম না করে মালদহের এক কংগ্রেস সাংসদের সমালোচনা করতেও ছাড়েননি মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী। এবারের পঞ্চায়েত নির্বাচনে বামনগোলা, হবিবপুর ব্লকে আশানুরূপ ফল করতে পারেনি তৃণমূল কংগ্রেস। পঞ্চায়েত নির্বাচনে ভরাডুবি হয়েছে তৃণমূলের। স্বাভাবিক কারণেই এই সব এলাকাকে সামনে রেখে ঘর গোছানোতে নেমেছে তৃণমূল কংগ্রেস।

এদিনের সভায় কয়েকশ কর্মী, সমর্থকদের নিয়ে তৃণমূলে যোগ দেন চাঁচোল মহকুমার মালতীপুর বিধানসভা কেন্দ্রের আরএসপি দলের প্রাক্তন বিধায়ক রহিম বক্সী।

- Advertisement -

মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী বলেন, “বিজেপি কেন্দ্রে ক্ষমতায় আসার পর ডিজেল – পেট্রোল সহ নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিসপত্রের দাম আকাশছোঁয়া হয়েছে। জিএসটি বসিয়ে জিনিসপত্রের দাম বেড়েছে। কিন্তু সম্প্রতি পাঁচ রাজ্যের বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপির ভরাডুবির পর সব জিনিসের দাম কমিয়েছে। তাই এই সরকারকে ক্ষমতাচ্যুত করতে হবে। তবেই নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসপত্রের দাম কমবে।”

মন্ত্রী আরও বলেন, “বিজেপি সরকার ক্ষমতায় আসার পর থেকে দেশের সার্বিক উন্নতি থমকে গিয়েছে। পশ্চিমবঙ্গের উন্নয়ন দেখে ওদের শেখার ছিল। কিন্তু শিখবে কি,পশ্চিমবঙ্গকে নানান দিক দিয়ে বঞ্চিত করছে মোদী সরকার। ১৯ জনুয়ারি ব্রিগেডের সভায় ওদেরকে বার্তা দিতে হবে।”

আরও পড়ুন : ‘আমি কী ওকে মারব?’ মনমোহনের উদ্দেশ্যে বলেছিলেন মমতা

এদিকে সভায় কংগ্রেসকে তুলোধোনা করেন মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী। তিনি বলেন ‘দক্ষিণ মালদহের একজন সাংসদ আছেন কুড়ি বছর ধরে। অথচ একটাও রাস্তার কাজ করতে পারেননি। তাকে এনআরআই সাংসদ বলেও কটাক্ষ করে শুভেন্দুবাবু। প্রাক্তন বিধায়ক তৃণমূলে যোগ দেওয়া নিয়ে মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী বলেন, ‘রহিম বক্সীর মত অনেক বাম নেতা তৃণমূলে এসেছেন। আরো অনেকে আসবেন। রহিম বক্সীর মতো নেতা দলে আসাতে মালদহ জেলার সংগঠন আরো চাঙ্গা হবে। এই জেলায় দুটি লোকসভা আসনে আমাদের জয়ী হতে হবে।’

পাকুয়াহাট এলাকায় বিশাল জনসভা শুরু হয়। এই সভায় মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারি ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন প্রাক্তন মন্ত্রী কৃষ্ণেন্দু চৌধুরি, সাবিত্রী মিত্র, তৃণমূলের জেলা সভাপতি মোয়াজ্জেম হোসেন, মালদহ জেলা পরিষদের সভাধিপতি গৌর চন্দ্র মন্ডল, আদিবাসী নেতা অমল কিসকু প্রমুখ।