মেক্সিকোকে উড়িয়ে প্রি-কোয়ার্টারে সুইডেন

একাতেরিনবার্গ: অঘটন বলা সম্ভব নয়৷ তবে চমক সন্দেহ নেই৷ বিশ্বকাপের ‘এফ’ গ্রুপে মেক্সিকোকে ৩-০ গোলে হারিয়ে নকআউটে জায়গা করে নিল সুইডেন৷

ফিফা ব়্যাংকিংয়ে পিছিয়ে থাকলেও মেক্সিকোর তুলনায় সুইডেনের বিশ্বকাপ ইতিহাস অনেক উজ্জ্বল৷ এই মুহূর্তে মেক্সিকোর বিশ্ব়্যাংকিং ১৫ এবং সুইডেনের ২৪৷ তবে মেক্সিকো যেকানে এখনও পর্যন্ত একবারও বিশ্বকাপের শেষ চারে পৌঁছতে পারেনি, সেখানে সুইডেন বিশ্বকাপের ফাইনালে উঠেছে একবার৷

১৯৫৮ সালে রানার্স হওয়া ছাড়াও আরও তিনবার সেমিফাইনালে উঠেছে তারা৷ তাছাড়া মেক্সিকোর সঙ্গে মুখোমুখি লড়াইয়ে সুইডেন এগিয়ে বেশ খানিকটা৷ স্বাভাবিকভাবেই ‘এফ’ গ্রুপের শেষ ম্যাচে হার্নান্ডেজদের বিরুদ্ধে লারসনদের জয় অপ্রত্যাশিত ছিল না৷ চমক চিল ম্যাচের ফলে৷ ম্যাচের আগাগোড়া আধিপত্য বজায় রেখে এমন একতরফাভাবে জয় তুলে নিয়ে সুইডেন প্রি-কোয়ার্টারে চলে যাবে, এতটাও আশা করেনি আন্তর্জাতিক ফুটবলমহল৷

- Advertisement -

শেষ রাউন্ডের ম্যাচের আগে গ্রুপের ছবিটা বেশ জটিল হয়ে দাঁড়িয়েছিল৷ দু’টো ম্যাচ হেরে কোরিয়া লড়াই থেকে ছিটকে গেলেও নকআউটের দৌড়ে টিকে ছিল তিনটে দল৷ মেক্সিকো দু’টো ম্যাচ জিতে ৬ পয়েন্ট সংগ্রহ করলেও শেষ ম্যাচ পর্যন্ত তাদের অপেক্ষা করতে হত প্রি-কোয়ার্টারের টিকিট নিশ্চিত করতে৷ গ্রুপের অপর ম্যাচে জার্মানি জিতলে গোলপার্থক্যের নিরিখে গ্রুপের নিস্পত্তি হওয়ার সম্ভাবনা ছিল৷

কোরিয়ার কাছে জার্মানি হেরে বসায় সুইডেনের কাজ সহজ হয়ে যায়৷ যদিও কোনও অঙ্কের হিসাবে যেতে রাজি ছিল না সুইডেন৷ তারা মরিয়া হয়ে লড়াইয়ে নামে৷ যার ফলটাও মেলে হাতেনাতে৷ মেক্সিকোকে উড়িয়ে গোল পার্থক্যের নিরিখে গ্রুপ চ্যাম্পিয়নের তকমা আদায় করে নেয় তারা৷

ম্যাচের প্রথমার্ধ গোলশূন্য থাকে৷ ৫০ মিনিটের মাথায় অগাস্টিনসন সুইডেনের হয়ে প্রথম গোল করেন৷ ৬২ মিনিটে গ্রানভিস্ট পেনাল্টি থেকে ব্যবধান বাড়িয়ে ২-০ করেন৷ ৭৪ মিনিটে মেক্সিকোর আলভারেজের গায়ে লেগে বল ঢুকে যায় তাদের জালেই৷

সুইডেন শেষবার কোনও বিশ্বকাপের ম্যাচ ৩-০ বা তারও বড় ব্যবধানে জিতেছিল ১৯৯৪ সালের তৃতীয় স্থান নির্নায়ক ম্যাচে বুলগেরিয়ার বিরুদ্ধে৷ গ্রুপ লিগে সুইডেন শেষবার ৩-০ ব্যবধানে জিতেছিল ১৯৫৮ সালে মেক্সকোর বিরুদ্ধেই৷

মেক্সিকো এই নিয়ে বিশ্বকাপের শেষ ২০টি গ্রুপ ম্যাচের মধ্যে মাত্র তিনটিতে হার মানল৷ সব ক’টিই গ্রুপের শেষ রাউন্ডের ম্যাচে৷ ২০০৬ সালে পর্তুগালের কাছে ১-২ গোলে এবং ২০১০ সালে উরুগুয়ের কাছে ০-১ গোলে পরাজিত হয়েছিল তারা৷ এবার সুইডেনের কাছে বিধ্বস্ত হয়ে হল তাদের৷ এই সুইডেনই বিশ্বকাপের কোয়ালিফায়ার প্লে-অফ থেকে ইতালিকে ছিটকে দিয়ে অঘটন ঘটিয়েছিল৷

Advertisement
---