সুইজারল্যান্ডকে ছিটকে শেষ আটে সুইডেন

সেন্ট পিটার্সবার্গ: মেক্সিকোকে হারিয়ে শেষ ষোলোয় পা রেখেছিল সুইডেন৷ বিশ্বকাপের শেষ আটে যাওয়ার জন্য সুইজারল্যান্ডকে ১-০ গোলে হারাল সুইডিশরা৷ প্রথমার্ধ গোলশূন্য থাকার পর ৬৬ মিনিটে এমিল ফর্সবার্গ দলকে এগিয়ে দেন৷ ১২ বছর পর বিশ্বকাপে মঞ্চে ফেরা সুইডিশরা জারী রাখল তাদের বিশ্বকাপ লড়াই৷

পুরো ম্যাচে বল পোজিশন এবং পাশিংয়ে এগিয়ে থেকেও গোলমুখ খুলতে ব্যর্থ থাকল সুইজারল্যান্ড৷ প্রায় এক ডজন গোলের সুযোগ নষ্ট করেন সুইজারল্যান্ডের ফুটবলাররা৷ প্রথমার্ধের প্রথম মিনিটেই গোল মিস করেন শাকিরি৷ বারবার বল নিয়ে সুইডিশ রক্ষণ ভাঙলেও আকাঙ্ক্ষিত গোল থেকে বঞ্চিত থাকে সুইজারল্যান্ড৷

প্রথমার্ধের গোল করা সুযোগ এসেছিল সুইডিশ মিডফিল্ডার একডাল ৪২ মিনিটে অরক্ষিত অবস্থায় বল পেয়েও বিপক্ষের জালে বল জড়িয়ে দিতে পারেননি৷ গোল শূন্য থাকে ম্যাচের প্রথমার্ধ৷ দ্বিতীয়ার্ধের ৬৬ মিনিটে ফর্সবার্গ গোলপোস্ট লক্ষ করে শট নেন৷ সুইজারল্যান্ডের গোলরক্ষক হয়ত আটকেও দিতে পারতেন গোলটি কিন্তু আকাঞ্জির পায়ে দিক পরিবর্তন করে জালে জড়ায় বল৷ যদিও গোলটি আকাঞ্জীর আত্মঘাতী গোল বলে স্বীকৃত হয়নি৷

- Advertisement -

১৯৯৪ পর বিশ্বকাপের কোয়ার্টারে পা রাখেনি সুইডিশরা৷ দক্ষিণ আফ্রিকা এবং ব্রাজিল বিশ্বকাপে মূলপর্বের দরজা অবধি পৌঁছতে পারেনি সুইডেন৷ খারাপ সময় কাটিয়ে বিশ্বকাপে ফিরে একপ্রকার অঘটন ঘটিয়েই শেষ আটে পৌঁছল সুইডেন৷ ফর্সবার্গের ওই গোল এবং শেষের দিকে সুইশ ডিফেন্ডার লাং-কে রেফারির লালকার্ড দেখানোর ফলে যেটুকু উত্তেজনা তৈরি হয়েছিল, বাকি পুরো ম্যাচ ছিল নিরুত্তাপ৷ বিশ্বকাপের নক-আউট পর্বের ম্যাচের সঙ্গে যা একেবারেই বে মানান ছিল৷

তবে সুইজারল্যান্ডের প্লেয়াররা এই ম্যাচ নিজেদের বোকামির জন্য হাতছাড়া করল, যা অনেকদিন মনে রাখবে দলটি৷ শাকিরি বারবার বল নিয়ে গোলপোস্টের কাছাকাছি পৌঁছে গিয়েও গোলে শট নিতে পারছিলেন না৷ আক্রমণে এগিয়ে থাকলেও ছন্দ খুঁছে পাওয়া যাচ্ছিল না সুইজারল্যান্ডের প্লেয়ারদের মধ্যে৷ প্রত্যেকেই যেন আলাদা আলাদা ফুটবল খেলছেন৷ অথচ বল দখলের লড়াইয়ে পিছিয়ে থেকেও গোলপোস্ট শট নিয়েছেন সুইডিস ফুটবলাররা৷ প্রথমার্ধের ২৯ মিনিটে মার্কাসের এবং জালের মধ্যে সুইজারল্যান্ডের গোলরক্ষক না আসলে ওই সময় এগিয়ে যেত দলটি৷

Advertisement ---
-----