লোকসভা নির্বাচনে আসাদুদ্দিনের বিরুদ্ধে লড়বেন রাজা সিং

হায়দরাবাদ: লোকসভা নির্বাচনে এআইএমআইএম প্রধান আসাদুদ্দিন ওয়াইসির বিরুদ্ধে বিজেপি প্রার্থী হছেন টি রাজা সিং। কেন্দ্রের শাসকদলের সূত্রে এমনই খবর জানা গিয়েছে।

আরও পড়ুন- দেশ বাঁচাতে ভারতীয় মুসলিমদের পালটা লড়াইয়ের আহ্বান আসাদুদ্দিনের

হায়দরাবাদের গোসামহল কেন্দ্রের বিধায়ক হলেন টি রাজা সিং। পদ্ম শিবিরের এই নেতা পুরেনও হায়দরাবাদ এলাকায় বেশ জনপ্রিয়। হিন্দু এলকাগুলিতেও বিশেষ প্রভাব রয়েছে এই গেরুয়া নেতার।

- Advertisement -

২০০৪ সাল থেকে হায়দরাবাদ এলাকার সাংসদ রয়েছে আসাদুদ্দিন। সংখ্যালঘু মহলে বিশেষ কদর রয়েছে তাঁর। নিজামের শহর ছাড়াও দেশের বিভিন্ন এলাকায় বিশেষ গুরুত্ব পেয়ে থাকেন আসাদুদ্দিন। অনেক সময় নিজেকে ভারতের মুসলিম সমাজের মুখ বলেও দাবি করেছেন তিনি।

আরও পড়ুন- দেশের স্বার্থে মোদী সরকারকে সমর্থন করতে প্রস্তুত আসাদুদ্দিন

সূত্রের খবর, এই ধরনের এক নেতার বিরুদ্ধে টি রাজা সিং-কেই উপযুক্ত বলে মনে করছে বিজেপি নেতৃত্ব। বিভিন্ন সময়ে বহু বেফাঁস মন্তব্য করে বিতর্কে জড়িয়েছেন টি রাজা সিং। কাশ্মীরি পুরোহিত প্রসঙ্গ, গোরক্ষা থেকে শুরু করে গণপিটুনি। সব ক্ষেত্রেই রাজা সিং-র মন্তব্য থেকে জন্ম নিয়েছে বিতর্ক। এই নেতাকেই হায়দরাবাদের মতো কেন্দ্র থেকে আদর্শ প্রার্থী বলে মনে করছে বিজেপি।

সূত্র মারফত আরও জানা গিয়েছে যে মূলত দু’টি কারণে টি রাজা সিং-কে হায়দরাবাদ থেকে প্রার্থী করা হতে পারে। এক প্রবীণ বিজেপি নেতার কথায়, “প্রথমটি হচ্ছে হায়দরাবাদের যুব সমাজের কাছে টি রাজা সিং একজন অত্যন্ত জনপ্রিয় রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব। অন্যদিকে, সমগ্র হায়দরাবাদের হিন্দু এলাকায় তাঁর বিশেষ প্রভাব রয়েছে।” হায়দরাবাদ লোকসভার অন্তর্গত হচ্ছে রাজার গোসামহল বিধানসভা কেন্দ্র। শহরের পুরনো এলাকায় ওই বিধানসভা কেন্দ্রটি অবস্থিত।

আরও পড়ুন- মেয়ের এনগেজমেন্টে ৬কোটি খরচ করে সমালোচিত ‘জ্ঞানপাপী’ আসাদুদ্দিন

সম্প্রতি হায়দরাবাদে গিয়েছিলেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ। ওই শহরে দলের অবস্থা নিয়ে টি রাজার কাছে বিস্তারিত চেয়েছেন তিনি। ওই সময়েই হায়দরাবাদ কেন্দ্র থেকে তাঁকে প্রার্থী করা বিষয়ে ইঙ্গিত দিয়েছেন অমিত।

আরও পড়ুন- ‘আসাদুদ্দিনের বুকের উপর গঠিত হবে হিন্দুরাষ্ট্র’

প্রার্থী হওয়ার বিষয়ে টি রাজা সিং বলেছেন, “দল যা নির্দেশ দেবে তা আমি পালন করব। হায়দরাবাদ ছাড়া অন্য কোথাও থেকেও যদি লড়াই করতে হয় আমি প্রস্তুত।” প্রার্থীপদ নিয়ে অমিত শাহের সঙ্গে কোনও কথা হয়েছে। এই বিষয়ে তিনি বলেছেন, “প্রার্থীপদ নিয়ে সভাপতির সঙ্গে কোনও কথা হয়নি। হায়দরাবাদে দলের অবস্থা জানতে চেয়েছিলেন। উনি আমার সাংগঠনিক দক্ষতার প্রশংসা করেছেন।”

Advertisement ---
---
-----