মুম্বই : কন্ট্রোভার্সি, বেফাঁস মন্তব্য, এসব যেন কিছুতেই সোনম কাপুররে পিছু ছাড়ে না৷ ফের বিতর্কে জড়ালেন সোনম৷ তাও আবার মুম্বই পুলিশের সঙ্গে৷ একটি ভিডিও নিয়ে ট্যুইটারে শুরু হয়েছে বচসা৷ ‘দ্য জোয়া ফ্যাক্টর’ ছবিতে দক্ষিনী অভিনেতা দুলকর সলমনের সঙ্গে অভিনয় করছেন সোনম৷

তাঁকে নিয়ে একটি ভিডিও ভাইরাল হয় সোশ্যাল মিডিয়ায়, যেখানে দুলকরকে গাড়ি চালাতে চালাতে মোবাইল ফোন ব্যবহার করতে দেখা গিয়েছে৷ ভিডিওটি আপনিও দেখলে ভাববেন দুলকর এমনটাই করছেন তবে পরে জানা যায় তিনি আদেও ড্রাইভ করছিলেন না৷

আসলে তাঁদের গাড়িটি একটি লোডেড ট্রাকের সঙ্গে কোনও কারণে আটকানো ছিল৷ এবং ট্রাকটি তাঁদের গাড়িটিকে টেনে নিয়ে যাচ্ছিল৷ তবে প্রথম ভিডিওটি দেখেই মুম্বই পুলিশ ট্যুইট করে বসে, যে এইসব স্টান্ট গাড়ি চালানোর সময় করলে বেপরোয়তা প্রমাণিত হয়৷

এর উত্তরে দুলকর এবং সোনম ট্যুইট করে লিখেছেন, “বিষয়টা পুরো জেনে তারপর ট্যুইট করুন৷ দোষ দেওয়ার আগে জেনে নিন যে আমাদের গাড়িটি একটি ট্রাকের সঙ্গে আটকানো৷ সেই ট্রাকের সাহায্যেই আমাদের গাড়িটি এগোচ্ছিল৷”

এতে থেমে থাকেননি সোনম৷ তিনি আরও লিখেছেন, যে মুম্বই পুলিশ যদি এই তৎপরতা সাধারণ মানুষদের জন্যও দেখায় তাহলে ভালো হয়৷ এতেই বাড়তে থাকে সোনম এবং মুম্বই পুলিশের তর্ক৷ রীতিমত কাদা ছেটাতে শুরু করেছেন তাঁরা একে অপরের দিকে৷

মু্ম্বই পুলিশ সোনমকে বুঝিয়ে দেয়, যে তিনিও সাধারণ মানুষ, কেউ সেলেব্রিটি বলে বেশি প্রাধান্য পাবে না৷ আর তাঁরা তাঁদের কাজ ঠিকমত বোঝে৷ ধীরে ধীরে কথা বাড়তে থাকলে সোনম পুরো বিষয়টি ধামাচাপা দেওয়ার জন্য একটি ট্যুইট করে লেখেন, যে কেউ যেন এসব নিয়ে স্পেকুলেশন না তৈরি করে৷

তাতে নেটিজেনের কাছে ট্রোলড হন সোনম৷ তাঁকে সকলে বলতে থাকেন, বিতর্ক তিনিই শুরু করেছেন৷ তিনি যদি সাধারণ মানুষ আর সেলেব্রিটিদের মধ্যে তফাৎ বের করে ট্যুইট না করতেন তাহলে এত কথা বাড়তই না৷

--
----
--