সেনা-তালিবান সেলফি স্বপ্ন গুঁড়িয়ে যাচ্ছে গজনির রাস্তায়

কাবুল:  রাতে আমরা ঘুমতে পারছি না৷ অপেক্ষা করছি কখন তালিবান এসে দরজায় কড়া নাড়বে৷ টুইট করেছেন আফগান প্রদেশ গজনীর বাসিন্দা এহসানুল্লাহ আমিরী৷ তাঁর টুইট থেকে এটাই পরিষ্কার, শহরটির পতন আসন্ন৷ গত ইদের দিন সেনা-তালিবান সেলফি স্বপ্ন গুঁড়িয়ে যাচ্ছে এখানে৷

প্রায় দেড়শ কিলোমিটার দূরে চলছে যুদ্ধ ৷ আর আতঙ্কে ভুগছেন কাবুলবাসী৷ ইদের দিনে যে রাস্তায় জঙ্গি ও সেনার সেলফি ভাইরাল হয়েছিল সেখানে এখন প্রবল সংঘর্ষ চলছে৷ ক্রমশ ঘিরে ধরছে তালিবান৷ পরিস্থিতি বুঝতে পেরে সরকারের কাছে আরও সেনার মদত চাইল গজনি শহর কর্তৃপক্ষ৷ মুহূর্মুহ মর্টার শেল আছড়ে পড়ছে শহরের চারপাশে৷

আফগান সংবাদ মাধ্যমের খবর, গজনি যাওয়ার মূল রাস্তা আপাতত বন্ধ৷ কবে এই সড়ক খুলবে তার কোনও ঠিক নেই৷ নিহতের সংখ্যা ক্রমশ বাড়ছে৷ শহর রক্ষায় আপ্রাণ লড়াই চালাচ্ছে অবশিষ্ট সেনা৷ গজনি প্রাদেশিক আইনসভার সদস্য হামিদুল্লা নওরোজি জানিয়েছেন, যদি কাবুল থেকে বাড়তি সেনা ঢুকতে না পারে তাহলে এই শহরের পতন অনিবার্য৷

আরও পড়ুন: BREAKING- ভয়াবহ তালিবানি হামলায় নিহত সেনা

এদিকে বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যমের খবর, গজনি থেকে তালিবান জঙ্গিদের তাড়াতে মার্কিন বিমান বাহিনী অবিশ্রান্ত বোমা ফেলছে৷ কিন্তু কিছুতেই জঙ্গিদের অগ্রগতি রোধ করা যাচ্ছে না৷ তবে স্থানীয় পুলিশ প্রধান ফারিদ আহমেদ মাশালা জানিয়েছেন, শহরের নিয়ন্ত্রণ এখনো রয়েছে আমাদের রক্ষীদের হাতেই৷ অন্যদিকে প্রাণভয়ে কাঁপছেন জনগণ৷ যেভাবে শহর ঘিরে হামলা চালাচ্ছে তালিবান তাতে বিপদ ক্রমে বাড়ছে৷

বিখ্যাত কাবুল-গজনি হাইওয়ে বন্ধ থাকায় রাজধানীর সঙ্গে একটি বড় অংশের যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন৷ রাস্তায় অবস্থান নিয়েছে সেনা৷ কিন্তু জঙ্গিদের হামলার কোনও বিরাম নেই৷ পরিস্থিতি বুঝে কাবুলে বিশেষ নিরাপত্তা বৈঠক করেছেন প্রেসিডেন্ট আশরাফ ঘানি৷ তাঁর আহ্বানেই ইদের আগে অস্ত্র সম্বরণে সায় দিয়েছিল তালিবান৷ বিশ্বজুড়ে ছড়িয়েছিল রাস্তায় রাস্তায় সেনা-জঙ্গির কোলাকুলি ও সেলফি তোলার ছবি৷ তবে তালিবানরা জানিয়েছিল এই শান্তি সাময়িক৷ হামলা অব্যাহত থাকবে৷

Advertisement
----
-----