কলকাতা:  ঢাকাই জামদানি চাই কিংবা বাংলার তসর! দোকানে গিয়ে হাজারো শাড়ি ঘেঁটে নিজের পছন্দেরটি বেছে নিতে গড়িমাসি? হাতের কাছে ল্যাপটপ বা স্মার্ট মোবাইল ফোনটি তো আছে! সেখানে শাড়ির নাম লিখে টাইপ করলেই নাগালে চলে আসবে অজস্র শাড়ি। কে কত সস্তায় কত চমকদার শাড়ি বেচতে পারে, তার যেন অলিখিত প্রতিযোগিতা শুরু হয়েছে অনলাইনের বাজারজুড়ে। এবার সেই বাজার বাজার ধরতেই আরও একধাপ এগোতে চাইছে রাজ্য সরকার। সরকারি সংস্থা তন্তুজের শাড়ি যাতে গুগল সার্চে সবার আগে আসতে পারে, এর জন্য ওই অনলাইন সংস্থার সঙ্গে গাটছাড়া বাধতে চলেছে ক্ষুদ্র ও কুটিরশিল্প দফতর।
মাস চারেক আগেই তন্তুজ গাটছাড়া বেঁধেছিল অনলাইন শপিং সংস্থা ফ্লিপকার্টের সঙ্গে। অনলাইনে শাড়ি বিক্রির ক্ষেত্রে সরকারের হাত ধরতে লাইনে দাঁড়িয়ে রয়েছে অ্যামাজন কিংবা স্ন্যাপডিলও। কিন্তু তন্তুজের ব্র্যান্ডকে আলাদা করে খুঁজে পাওয়া কঠিন। সেই খরা কাটাতেই তন্তুজ নিজের ওয়েবসাইটেই অনলাইনে শাড়ি বিক্রি শুরু করে আগেই। কিন্তু সেখানে পেশাদারিত্বের যে অভাব রয়েছে, তা মানছেন সরকারি আধিকারিকরাই। ফলে সব খরা কাটিয়ে তন্তুজকে বিশ্বের দরবারে তুলে আনতে এখন পেশাদারি এক সংস্থার পরামর্শ নিচ্ছে সরকার।
সরকারের শাড়ি বিক্রিতে কীভাবে সাহায্য করবে গুগল। জানা গিয়েছে, শাড়ির সন্ধানে কেউ গুগল এ সার্চ করলেই যাতে তন্তুজের সম্ভার সবার আগে আসে, সেই কাজটিই করবে ওই সংস্থা। এই বিষয়ে খুব শীঘ্রই চুক্তি হতে চলেছে ওই সংস্থার সঙ্গে।

----
--