রাজনীতির মূলস্রোতে ফিরতে চাইছেন ‘চন্দননগরের মাল’

স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: রাজনীতির মূলস্রোতে ফিরতে চাইছেন তাপস পাল৷ বুধবার তৃণমূল কংগ্রেসের মহসাচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গে বৈঠকের জেরে এমনই মনে করছে এখন ঘাসফুল শিবিরের বিভিন্ন অংশ৷

বুধবার বিকালে স্ত্রী নন্দিনী পালকে সঙ্গে নিয়ে পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের বাড়িতে যান রোজভ্যালিকাণ্ডে অভিযুক্ত তাপস পাল৷ রোজভ্যালিকাণ্ডে ১৩ মাস জেলে থাকার পরে গত ফেব্রুয়ারি মাসে শর্তাধীন জামিনে মুক্তি পেয়েছেন তাপস পাল৷ সেই সময় তৃণমূল কংগ্রেসের এই সাংসদ জানিয়েছিলেন, তিনি ভালো নেই৷ ১৩ মাস জেলের ভিতর থেকে তাঁর তিনটি নার্ভ নষ্ট হয়ে গিয়েছে৷ কোমরের ব্যথায় তিনি ঠিকমতো হাঁটাচলা করতে পারছেন না৷

তার পর থেকে দলীয় কোনও কর্মসূচিতে দেখা যায়নি তাপস পালকে৷ তিনি নিজেও আর সংবাদমাধ্যমের সামনে আসেননি৷ বুধবার পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের বাড়িতে তাঁর সস্ত্রীক যাওয়ার বিষয়টিকে কেন্দ্র করে রাজনৈতিক মহলের বিভিন্ন অংশে কৌতূহল দেখা দিয়েছে৷ তৃণমূল কংগ্রেস সূত্রের খবর, দলের মহাসচিবের কাছে আসন্ন ত্রিস্তরীয় পঞ্চায়েত নির্বাচনে তিনি এ দিন কাজ করার ইচ্ছা প্রকাশ করেছেন৷

- Advertisement -

সূত্রের খবর, পার্থ চট্টোপাধ্যায় এ দিন বলেছেন, তাপস পাল আগে ভালো করে সুস্থ হয়ে উঠুন৷ তার পর এই বিষয়ে দেখা যাবে৷ এই বিষয়ে তৃণমূল কংগ্রেসের মহাসচিবের কাছে জানতে চাওয়া হলে তিনি বলেন, “উনি যখন অসুস্থ ছিলেন, তখন আমার বা বক্সীদার (সুব্রত বক্সী) সঙ্গে ওর দেখা হয়নি৷ তাই দেখা করতে এসেছিলেন৷ এটা সৌজন্য সাক্ষাৎ ছাড়া আর কিছুই নয়৷”

তাপস পালের ঘনিষ্ঠ মহল সূত্রে জানা গিয়েছে, দলের সঙ্গে তাঁর যে দূরত্ব তৈরি হয়েছে, সেটা বেশ টের পাচ্ছেন তিনি৷ যে কারণে, আসন্ন পঞ্চায়েত নির্বাচনের আগে নিজেকে তিনি দলের মূলস্রোতে ফিরিয়ে আনার চেষ্টা করছেন৷ যদিও, তৃণমূল কংগ্রেস সূত্রে জানা গিয়েছে, এখনই তাপস পালকে কাছে ঘেঁষতে দিতে চাইছেন না দলের শীর্ষ নেতৃত্ব৷ বিশেষ করে পঞ্চায়েত নির্বাচনের আগে৷

কারণ হিসাবে ঘাসফুল শিবির সূত্রে এমনই জানা গিয়েছে, রোজভ্যালিকাণ্ডর পাশাপাশি চৌমুহাকাণ্ডে তাপস পালের বিতর্কিত মন্তব্য এখনও সাধারণ মানুষের মনে গেঁথে রয়েছে৷ যে কারণে, ‘চন্দননগরের মাল’কে আপাতত বিশ্রামে থাকার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে৷

Advertisement
---