জুনে একটি মাত্র ন্যানো উৎপাদন করেছে টাটা মোটর্স

মুম্বই: রতন টাটার স্বপ্নের একলাখি গাড়ি ন্যানো-র পথচলায় দাড়ি পড়তে চলেছে৷ জুন মাসে টাটা মোটর্স মাত্র একটি ন্যানো উৎপাদন করেছে ৷ এমনটাই খরব জানাচ্ছে সংবাদ সংস্থা৷ টাটা গোষ্ঠীর যদিও সংস্থার পক্ষ থেকে এখনও বলা হচ্ছে ন্যানোর উৎপাদন বন্ধ করার কোনও সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি৷

এদিকে টাটা মোটর্স-এর পক্ষ থেকে জানান হয়েছে জুন মাসে কোনও ন্যানো রফতানি করা যায়নি৷ যদিও গত বছর জুন মাসে ২৫টি ন্যানো গাড়ি রফতানি করা হয়েছিল৷ এই জুন মাসে মাত্র একটি ন্যানো গাড়ি তৈরি করা হয়েছে যেখানে গত বছর জুন মাসে ২৭৫টি ন্যানো গাড়ি তৈরি হয়েছিল৷ দেশিয় বাজারে জুন মাসে তিনটি ন্যানো গাড়ি বিক্রি হয়েছে যেখা ২০১৭ সালের জুনে বিক্রি হয়েছিল ১৬৭টি ৷

এই প্রসঙ্গে জানতে চাওয়া হয় আদৌ ন্যানো উৎপাদন বন্ধ করে দেওয়া হচ্ছে কি না৷ সেই প্রসঙ্গে টাটা মোটর্সের মুখপাত্র জানান, আগেই বলা হয়েছিল এই ফর্মে ন্যানো ২০১৯ সালের পরে চলতে পারবে না তাই এই প্রকল্পটি বাঁচাতে দরকার আরও লগ্নি৷ তাছাড়া তিনি আরও জানান, ন্যানো উৎপাদন করা হবে ক্রেতার চাহিদা লক্ষ্য রেখে ৷

- Advertisement -

২০০৮ সালে জানুয়ারির মাসে অটোএক্সপোতে এই এখ লাখি ‘জনগণের গাড়ি’ আত্মপ্রকাশ করে৷ তারপরে এই ন্যানো গাড়ি বাজারে আসে ২০০৯সালের মার্চে এবং প্রাথমিক দাম ধার্য হয় এক লাখ টাকা যা রতন টাটা প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন ৷

যদিও ন্যানো ঘিরে সমস্যা প্রথম থেকেই৷ প্রথমে ঠিক হয়েছিল পশ্চিমবঙ্গের সিঙ্গুর থেকে এই গাড়ি বের হবে ৷ কিন্ত সেখান গাড়ি প্রকল্পের জমি ঘিরে অনিচ্ছুক চাষিদের আন্দোলেনের জেরে তা সরিয়ে নিয়ে যাওয়া হয় গুজরাতের সানন্দে৷

তারপর বাজারে এই এক লাখি গাড়ি আসার পর রাস্তায় নামলেই গাড়িতে আগুণ লাগা নিয়ে এই নয়া গাড়ি নিয়ে আতংক ছড়ায়৷ পরে এই প্রকল্প জন্য ক্ষতির মুখে পড়তে হওয়ায় সাইরাস মিস্ত্রির সঙ্গে রতন টাটার মনোমানিল্য হতে দেখা যায়৷

Advertisement
----
-----