টাটার ন্যানো গাড়ি কি বন্ধ হতে চলেছে?

প্রতীকী ছবি

নয়াদিল্লি: ধীরে ধীরে কি ‘অবলুপ্তির’ পথে এগিয়ে চলেছে টাটার ন্যানো গাড়ি? আগামীদিনে কি আর রাস্তায় দেখা যাবে না এই একলাখি গাড়িকে? রিপোর্ট যা বলছে তাতে এই প্রশ্নই উকিঝুঁকি মারছে গাড়ি ডিলারদের মধ্যে৷

এক বেসরকারি সংস্থার রিপোর্ট বলছে, ন্যানোর চাহিদা এখন অনেকটাই তলানিতে৷ গাড়ির শোরুমগুলিতে এখন আগের মতো ঠাঁই নেই টাটার গাড়ির৷ সেখানে ন্যানোর জায়গা করে নিয়েছে টিয়াগো, হেক্সা ও নেক্সনের মতো মডেলগুলি৷ কিছুদিন আগে কোম্পানির উৎপাদনকেন্দ্র সানন্দাতে যেখানে প্রায় দু’শোটি গাড়ি তৈরি করা হত এখন সেই সংখ্যাটা মেরেকেটে দু’টিতে এসে ঠেকেছে৷

অগষ্ট মাসে দেশের ৬৩০টি শোরুম থেকে ১৮০টি ন্যানো গাড়ি বিক্রি হয়েছে৷ সেখানে সেপ্টেম্বর ও অক্টোবর মাসে আরও কম গাড়ি বিক্রি হয়েছে৷ অথচ এই সময় গাড়ির চাহিদা তুঙ্গে থাকে৷ এই দুই মাসে যথাক্রমে মাত্র ১২৪ ও ৫৭টি গাড়ি বিক্রি হয়েছে৷ এখন দৈনিক মাত্র দুটি গাড়ির উৎপাদন হয় সানন্দাতে৷ ডিলাররাও আর নতুন করে অর্ডার তুলছেন না৷

- Advertisement -

মধ্যবিত্তদের গাড়ির শখ পূরণ করতে সস্তায় একলক্ষ টাকায় গাড়ি নিয়ে আসেন শিল্পপতি রতন টাটা৷ ২০০৮ সালে বাজারে আসে সেই একলাখি গাড়ি৷ কিন্তু এক লাখে বেঁধে রাখা যায়নি ন্যানোর দাম৷ এখন বাজার ২.২৫ থেকে ৩.২০ লক্ষ টাকায় বিক্রি হচ্ছে ন্যানো৷ টাটার গাড়ি সেভাবে দাগ কাটতে না পারায় নয়া ভাবনাচিন্তা শুরু করেছে কোম্পানি৷ জানা গিয়েছে, টাটা মোটরস কোয়েম্বাটোরের এক অটোমোবাইল কোম্পানির সঙ্গে গাঁটছড়া বেঁধে ‘ইলেকট্রিক নিও’ নামে নয়া রূপে ন্যানোকে লঞ্চ করতে চলেছে৷

Advertisement ---
---
-----