কলকাতাঃ  বাংলায় আইটি সেক্টরে ক্রমশ বিনিয়োগ বাড়ছে। সেই মতো তৈরি হচ্ছে কর্মসংস্থানও। টাটাদের সংস্থা টাটা কনসালট্যান্সি সার্ভিসেস (টিসিএস), কগনিজেন্ট, উইপ্রো এবং জেনপ্যাক্ট সম্প্রসারণ করছে। টিসিএস এবং কগনিজেন্ট-এই অতিরিক্ত ৪০ হাজার আইটি পেশাদারের কর্মসংস্থানের সুযোগ আসছে। এছাড়া ইনফোসিসও চালু হবে। সেখানে দু’হাজার নিয়োগ হবে। উইপ্রো ও জেনপ্যাক্টে আরও চার হাজার কর্মসংস্থান হবে। রাজ্য সরকার ঠিক করেছে, কোনও সংস্থা নতুন কোনও তথ্যপ্রযুক্তি কেন্দ্র চালু করতে চাইলে, তাদের দ্রুত জমি দেওয়া হবে। এমনটাই প্রকাশ বাংলা এক সংবাদমাধ্যমে।

বাংলা ঐ সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত খবর মোতাবেক, টিসিএসের ক্যাম্পাসে বর্তমানে ৪০ হাজার পেশাদার কর্মরত রয়েছে। যা তাদের বেঙ্গালুরু ক্যাম্পাসের চেয়েও বেশি। নিউটাউনের গীতাঞ্জলি পার্কে আরও একটি ক্যাম্পাস তৈরি করবে টিসিএস। যেখানে ২০ হাজার পেশাদারের চাকরির সুযোগ আসছে। রাজ্য সেই ক্যাম্পাস গড়ার জন্য যা যা অনুমোদন দরকার, তা দিয়েছে। এছাড়াও সিলিকন ভ্যালি হাবে জমি চেয়েছে টিসিএস। আইটিসি লিমিটেডও নিউটাউনে ক্যাম্পাস তৈরি করছে। ১৬.৯২ একর জমিতে ওই ক্যাম্পাস তৈরি হচ্ছে। আগামী বছরের আগস্ট মাসের মধ্যে ওই ক্যাম্পাস তৈরি হয়ে যাবে। এই ক্যাম্পাসে ৫০০ কোটি টাকা বিনিয়োগ হয়েছে। যেখানে কাজ করবেন কমপক্ষে পাঁচ হাজার পেশাদার।

অন্যদিকে, ইনফোসিসও তাদের প্রকল্পের কাজ শুরু করেছে নিউটাউনে। প্রাথমিকভাবে ২০০ কোটি টাকা বিনিয়োগ করবে ইনফোসিস। তাদের ক্যাম্পাসে দু’হাজার পেশাদারের বসার জায়গা থাকবে। জেনপ্যাক্টও সম্প্রসারণ করতে চলেছে। নতুন বিল্ডিং বানাবে বলে তারা রাজ্য সরকারকে জানিয়েছে। সেখানে ৩০০ কোটি টাকা বিনিয়োগ করবে। আরও তিন হাজার কর্মসংস্থান হবে। বর্তমানে জেনপ্যাক্ট সংস্থায় কর্মরত আছেন তিন হাজার পেশাদার। কগনিজেন্টে বর্তমানে কাজ করছেন ১৮ হাজার। তবে আগামিদিনে সংখ্যাটা আরও কয়েকগুন বাড়বে বলেই মনে করা হচ্ছে।

পাশাপাশি বাংলা ওই সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত খব্র মোতাবেক, উইপ্রোতে বর্তমানে কর্মরত মানুষের সংখ্যা ৬৪০০। আগামী বছর আরও ৮০০ জনকে নিয়োগ করা হবে। ফলে আগামী কয়েকদিনের মধ্যে কলকাতা তথ্যপ্রযুক্তি ক্ষেত্রে কর্মসংস্থানে বড় দিক খুলে যাচ্ছে।

----
--