ছাত্রীকে স্কুলের মধ্যে একা পেয়ে যা করলেন প্রধান শিক্ষক!

প্রতীকী

লখনউ:  স্কুলের প্রধানশিক্ষকের বিরুদ্ধে শ্লীলতাহানির চেষ্টার অভিযোগ৷ উত্তরপ্রদেশের সাহারনপুরের সম্বলপুর নবাদা গ্রামের জুনিয়ার হাইস্কুলে ঘটেছে এমনই লজ্জাজনক ঘটনা৷ গ্রামের এই স্কুলে সোমবার পরীক্ষা চলছিল৷ এই সময়ই ওই ছাত্রী প্রধান শিক্ষকের উপর শ্লীলতাহানি করার অভিযোগ করে চিৎকার করতে শুরু করে৷ এই ঘটনার অন্য শিক্ষকেরা অবাক হয়ে যান৷

ঘটনা জানাজানি হতেই ছাত্রীর বাড়ির লোকেরা ও গ্রামের লোকেরা ব্যাপক উত্তেজিত হয়ে ওঠেন৷ তারা স্কুলে পৌঁছে প্রধান শিক্ষকে আটকে রেখে তাকে মারধর করেন৷ গ্রামবাসীদের বক্তব্য এর আগেও প্রধানশিক্ষকের বিরুদ্ধে এই ধরনের অভিযোগ উঠেছিল৷

খবর পাওয়ার পরই স্কুলে আসে পুলিশ ও বিএসএ বিনয় কুমার৷ তারা ওই ছাত্রী ও স্কুলের অন্যান্য কর্মীদের জিজ্ঞাসাদ করেন৷ বেশকিছু ছাত্রী জানিয়েছেন প্রধানশিক্ষক অশ্লীল কথা বলতেন ও শ্লীলতাহানির চেষ্টাও করেন৷ পুলিশ প্রাধনশিক্ষকে থানায় নিয়ে আসেন৷ ছাত্রীর বাবার অভিযোগের ভিত্তিতে প্রধানশিক্ষক বীরসেনের বিরুদ্ধে শ্লীলতাহানির অভিযোগ দায়ের করে তাকে গ্রেফতার করে জেল হেফাজতে রাখে পুলিশ৷ বিএসএ বিনয় কুমার শ্লীলতাহানির অভিযোগের ভিত্তিতে প্রধানশিক্ষককে স্কুল থেকে সাসপেন্ড করেন৷ তিনি জানিয়েছেন এই মামলার তদন্ত শুরু করা হয়েছে৷ প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে অভিযোগ সত্য প্রমাণ হলে তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় তদন্ত করার কথাও জানিয়েছেন তিনি৷

Advertisement
----
-----