পঞ্চায়েতে বোর্ড গঠন ঘিরে উত্তেজনা

স্টাফ রিপোর্টার, তমলুক: গ্রাম পঞ্চায়েতের বোর্ড গঠনকে কেন্দ্র করে উত্তেজনা ছড়ালো পূর্ব মেদিনীপুরের রামনগর থানার তালগাছাড়ি এক নম্বর ও মহিষাদল ব্লকের নাটশাল দুই নম্বর গ্রামপঞ্চায়েতে৷ বোর্ড গঠনকে ঘিরে সিপিএম তৃণমূল সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে৷ পরে পুলিশি হস্তক্ষেপে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসে৷

শুক্রবার সুপ্রিম কোর্টের রায়ের পর ‘বিনা প্রতিন্দিন্দ্বিতায়’ জয়ী আসনে বোর্ড গঠনে আর কোনও বাঁধা নেই৷ কিন্তু এদিন আদালতের পূর্ব ঘোষণা মত বোর্ড গঠনের প্রক্রিয়া শুরু হয় তালগাছাড়ি এক নম্বর গ্রামপঞ্চায়েতে৷ প্রথমে বচসা, পরে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে যুযুধান শাসক বিরোধী পক্ষ৷

আরও পড়ুন: আদালতের রায় গণতন্ত্রের জয়: পার্থ চট্টোপাধ্যায়

তালগাছাড়ি এক নম্বর গ্রাম পঞ্চায়েতে মোট আসন সংখ্যা ১৩টি। যার মধ্যে তৃণমূলের রয়েছে ৬টি, বিজেপির ৪টি, সিপিএম ১টি এবং নির্দল ২টি। বিজেপির দাবী বিরোধীরা সকলেই তাঁদের পক্ষে রয়েছে। বিজেপি এই দাবির পরই উত্তেজনা দেখা দেয়৷

বিজেপির দাবি, বিরোধী দলের জয়ী প্রার্থীরা গ্রাম পঞ্চায়েতের বোর্ড গঠনে ভাগ নিতে রামনগর বিডিও অফিসে ঢুকতে যায়। সেই সময়ই তৃণমূলের হাতে আক্রান্ত হতে হয় বিজেপি প্রার্থী ও কর্মীদের, ঘটনায় বিজেপির বেশ কয়েকজন অল্পবিস্তর জখমও হন।

তৃণমূলের তরফে রামনগরের বিধায়ক অখিল গিরির দাবি, ‘‘তাঁর চোখে লঙ্কা গুড়ো ছেঁটানো হয়েছে। সেই সঙ্গে যারা ভোটে জেতেনি তাঁরাও জোর করে ভেতরে ঢুকতে চেষ্টা করেছিল। এর প্রতিবাদকরাতেই হামলা চালানো হয়েছে।’’

খবর পেয়েই রামনগর থানা থেকে বিশাল পুলিশ বাহিনী ঘটনাস্থলেযায়৷ পুলিশি হস্তক্ষেপেই শুরু হয় বোর্ড গঠন পক্রিয়া৷

অন্যদিকে মহিষাদল পঞ্চায়েত সমিতির অন্তর্গত নাটশাল দুই নম্বর গ্রামপঞ্চায়েত প্রধান কে হবে তা নিয়ে মহিষাদল পঞ্চায়েত সমিতির সামনে উত্তেজনা ছড়ায়। পরে মহিষাদল ব্লক তৃণমূলের সভাপতি তিলক
চক্রবর্তীর উপস্থিতিতে ভোটাভোটির মাধ্যমে পঞ্চায়েত প্রাধান নির্বাচিত হন নিমতা পট্টনায়েক৷

Advertisement
----
-----