থ্যালেসেমিয়া চিকিৎসার পরিকাঠামো উন্নয়নের দাবি

স্টাফ রিপোর্টার, কোচবিহার: এ রাজ্যে উত্তরঙ্গের মধ্যে কোচবিহার জেলায় থ্যালাসেমিয়া আক্রান্ত শিশুদের সংখ্যা অপেক্ষাকৃত বেশী। কিন্তু চিকিৎসার বিষয়ে পিছিয়ে এই জেলা৷ তাই কোচবিহার এম জে এন হাসপাতালে থ্যালেসেমিয়া আক্রান্ত রোগিদের চিকিৎসা পরিকাঠামো বৃদ্ধির দাবি জানালো উত্তরবঙ্গ থ্যালেসামিয়া প্রতিবন্ধী সেবা সমিতি।

বুধবার কোচবিহার প্রেস ক্লাবে এক সাংবাদিক সন্মেলনে সংগঠনের কনভেনর বিমল কৃষ্ণ বনিক জানিয়েছেন, যে যন্ত্রের মাধ্যমে থালাসেমিয়ার রক্ত পরীক্ষা করা হয়৷ সেই যন্ত্র কোচবিহার এম জে এন হাসপাতালে আছে৷ কিন্তু কোনও টেকনিশিয়ান না থাকায় তা কোন কাজেই লাগেনা। ফলে এই রোগের নির্ণয় হচ্ছেনা৷ এছাড়াও এই হাসপাতালে কোন হেমোটোলজিস্ট না থাকায় সমস্যা হয়৷

আরও পড়ুন: বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে সহবাসে অভিযুক্ত প্রাক্তন দাবাড়ু

- Advertisement -

তিনি আরও জানিয়েছেন, কোচবিহারে থ্যলেসামিয়া আক্রান্তরা অধিকাংশই দরিদ্র শ্রেনীর৷ তাই বেসরকারি প্রতিষ্টান থেকে রক্ত পরীক্ষার জন্য অনেক টাকা খরচ হয় এই পরিবার গুলির। এছাড়াও বিভিন্ন সময় ব্লাড ব্যাংকে রক্তের সঙ্কট দেখা দিলেও সমস্যায় পরতে হয় এই সব শিশুদের ও তাঁদের পরিবারকে। এই বিষয়ে বার বার হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করা হলেও কোনও পদক্ষেপ হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ নেয়নি বলেই অভিযোগ।

উত্তরবঙ্গ থ্যালেসামিয়া প্রতিবন্ধী সেবা সমিতি দীর্ঘ দিন ধরে থ্যালেসেমিয়া আক্রান্ত শিশুদের নিয়ে কাজ করছে। তাঁদের বিনা পয়সায় চিকিৎসা থেকে শুরু করে অপারেশন এই সংস্থার মাধ্যমে করা হয়েছে। এদিন অনেক থ্যালেসেমিয়া আক্রান্ত শিশুদের অভিভাবকরা তাঁদের সমস্যার কথা জানিয়েছেন৷ অনেকেই এমন আছেন যারা এখোনও থ্যালেসেমিয়া কার্ড পাননি।

আরও পড়ুন: ছেলেধরা সন্দেহে গণপিটুনি এক ব্যক্তিকে

বিমল কৃষ্ণ বনিকের দাবি, অনেক কষ্ট করে থ্যালেসেমিয়া আক্রান্ত শিশুদের চিকিৎসা করা হচ্ছে৷ তাই এই সব শিশুদের গাড়ি ভাড়ায় ছাড় ও অন্যান্ন সুযোগ সুবিধা দেওয়ার ব্যবস্থা করা হোক৷

Advertisement ---
---
-----