তিন তালাকের বিরুদ্ধে আইনি লড়াই জিতে বিজেপিতে ইসরত

স্টাফ রিপোর্টার, হাওড়া: তিন তালাকের বিরুদ্ধে লড়াই করে দেশের শীর্ষ আদালতে আইনি স্বীকৃতি ছিনিয়ে এনেছেন হাওড়া পিলখানার ইসরত জাহান৷ তিন তালাকের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের স্বীকৃতি পাওয়ার পরপরই বিজেপি শিবিরে নাম লেখালেন ইসরত৷ আজ আনুষ্ঠানিকভাবে বিজেপিতে যোগদান করেন তিনি৷

হাওড়ার বেলিলিয়াস রোডে শনিবার দুপুরে বিজেপি মহিলা মোর্চার তরফ থেকে ইসরতের হাতে দলীয় পতাকা তুলে দেওয়া হয়৷ ইসরত জানান, প্রধানমন্ত্রী মোদীর প্রতি কৃতজ্ঞতা দেখা গিয়ে বিজেপিতে আনুষ্ঠানিকভাবে যোগ দিয়েছেন তিনি৷ পদ্ম শিবিরে ইসরতের যোগদানের ঘটনায় নতুন করে অক্সিজেন পেয়েছে বিজেপির সংখ্যালঘু মোর্চা৷ তিন তালাকের বিরুদ্ধে এমনিতে লাগাতার প্রচার কর্মসূচিতে নেমেছে বিজেপি৷সংসদে বিল পাশ করাতে উঠেপড়ে লেগেছে গেরুয়া শিবির৷দেশের রাজনীতিতে তিন তালাকা নিয়ে নিয়ে যখন উত্তপ্ত রাজনীতির আঙিনা, ঠিক তখনই ইসরতের বিজেপিতে যোগের ঘটনায় নতুন বছরের আগে বড় উপহার পেল গেরুয়া শিবির৷

তিন তালাকের বিরুদ্ধে দেশের বিভিন্ন প্রান্তের মহিলাদের সঙ্গে লড়াইয়ে নেমেছিলেন এরাজ্যের ইসরত জাহান৷ সুপ্রিম কোর্টের রায়ে জিতে গিয়েছিলেন তাৎক্ষণিক তিন তালাক বন্ধের লড়াইয়ে৷ নতুন লড়াইয়ের জমি তৈরির ইঙ্গিত দিয়েছিলেন৷ তবে, নতুন লড়াইয়ের জন্য তৈরি হওয়ার ইঙ্গিত দিলেও বিজেপিতে নাম লিখিয়ে রীতিমতো চমকে দিলেন তিনি৷

- Advertisement -

ঠিক কী ভাবে নিজের লড়াই চালিয়ে গিয়েছিলেন ইসরত? অক্ষেপের সঙ্গে তিনি সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছিলনে, ১৪ বছর বয়সে বিহারের মুরতাজার সঙ্গে তাঁর বিয়ে হয়৷ কিন্তু মেয়ের জন্ম দেওয়ার ‘অপরাধ’-এ লাগাতার অত্যাচার ও অপমান সহ্য করতে হয়েছে তাঁকে৷ ছেলে হওয়ার পরেও পরিস্থিতি বদলায়নি৷ ২০১৪ সালে আবু ধাবি থেকে তাঁকে ফোনে তালাক দেওয়া হয়৷ তার পরেই শুরু হয় ইসরতের নতুন লড়াই৷ শ্বশুরবাড়ির লোকজন এবং এলাকার কিছু মানুষের বিরুদ্ধে বারবার কটূক্তি, হেনস্থার অভিযোগ জানিয়েছেন ইসরত৷ নিরাপত্তার অভাব বোধ করায় বিভিন্ন সময়ে রাজ্য সরকারকে বিষয়টি জানালেও কোনও ফল মেলেনি বলেই তাঁর অভিযোগ৷

২০১৪ সালে টেলিফোনে আবুধাবি থেকে ইশরতকে তিন তালাক দেন মুর্তাজা৷ জোর করে তাঁর থেকে কেড়ে নেওয়া হয় চার সন্তানকেও৷ তারপর থেকেই শুরু হয় লড়াই৷ এরপরই তিন তালাকের বিরুদ্ধে সরব হন ইসরত৷ স্বামী ও শ্বশুরবাড়ির লোকেরা বারবার হেনস্থা করেছে বলে অভিযোগ করেন ইশরত জাহান৷ অবশেষে গত ২২ অগাস্ট সুপ্রিম কোর্টের ঐতিহাসিক রায়ে নিষিদ্ধ তিন তালাক৷ চলতি সপ্তাহেই লোকসভায় পাশ হয়ে গিয়েছে তিন তালাক বিরোধী বিল৷অপেক্ষা শুধুই রাজ্যসভার সমর্থন৷

Advertisement ---
---
-----