‘পাহাড়ে নিজের সংগঠন মজবুত করছে বিজেপি’: দিলীপ ঘোষ

ফাইল চিত্র

স্টাফ রিপোর্টার, কোচবিহার: দলীয় কর্মসূচিতে যোগদান করতে কোচবিহার এসেছেন রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ৷ মঙ্গলবার কোচবিহার সুকান্ত মঞ্চে দলীয় নেতাদের সঙ্গে বৈঠক করেন তিনি।

পাশাপাশি এদিনের সাংবাদিক সম্মেলনে তৃণমূলকে তীব্র কটাক্ষ করতেও পিছুপা হলেন না বিজেপির রাজ্য সভাপতি৷ কোনও জোটের ভরসায় না থেকে পাহাড়ে আগামী দিনে নিজের শক্তি বৃদ্ধি করছে বিজেপি৷ আগামী দিনে বিজেপি পাহাড়ে প্রধান শক্তি হয়ে উঠবে বলে দাবি করলেন রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ।

মঙ্গলবার কোচবিহার জেলা কার্যালয়ে এক সাংবাদিক সম্মেলনে দিলীপ ঘোষ বলেন, ‘‘পাহাড়ের মানুষ তৃণমূল কংগ্রেসের শাসনে ক্লান্ত ও অত্যাচারিত৷ তাঁরা বিজেপিকে চাইছে। এছাড়াও বিমল গুরুং-এর অবর্তমানে গোর্খা জনমুক্তি মোর্চাও অভিভাবকহীন হয়ে পড়েছে৷ এই পরিস্থিতিতে জনমুক্তি মোর্চা এবং দার্জিলিং-এর সাধারণ মানুষ বিজেপির সঙ্গে যোগাযোগ করছে।’’

- Advertisement -

তিনি আরও বলেন, ‘‘আমরা দার্জিলিং-এ জোট শরিকদের নিয়ে রাজনীতি করছিলাম৷ কিন্তু তার সঙ্গে সঙ্গে আমাদের দলের শক্তি বৃদ্ধি করছি৷ আগামী দিনে পাহাড়ে বিজেপি প্রধান রাজনৈতিক শক্তি হবে৷ মুখ্যমন্ত্রী পাহাড়ে জঙ্গলে যাচ্ছেন৷ কিন্তু কেউ তাঁর কোনও কথা শুনছে না৷ জঙ্গলমহলে বিজেপিকে ভাঙতে পারেননি তিনি৷ অন্যদিকে দার্জিলিং-এ যাকে নেতা বানাতে চাইছেন তাঁকে মানুষ চাইছে না৷ তাই বিকল্প হিসাবে মানুষ বিজেপিকে চাইছে।’’

এদিন মানবাধিকার কর্মী এক মহিলাকে অনুব্রত মণ্ডলের হুমকি প্রসঙ্গে দিলীপ ঘোষ বলেন, ‘‘এই ভাবেই রাজ্যের বিরোধীদের মিথ্যা মামলায় ফাঁসিয়ে জেলে ঢোকানো হচ্ছে।’’ এদিন তিনি অভিযোগ করে জানান, নির্বাচনের আগে ও পরে মিথ্যা মামলায় প্রায় ১২ হাজার বিজেপি কর্মীকে জেলে ঢোকানো হয়েছে। এই প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘‘পুলিশকে সঙ্গে নিয়ে এই ধরনের মিথ্যা মামলায় ফাঁসিয়ে বিরোধীদের কণ্ঠরোধ করতে চাইছে তৃণমূল কংগ্রেস। মিডিয়ায় এই বিষয়টা প্রকাশ্যে আসার জন্য এখন সকলে বিষয়টি নিয়ে বলছে৷ কিন্তু এই কথা আমরা আগে থেকেই জানি।’’

Advertisement
---