গঙ্গা থেকে উদ্ধার নিখোঁজ সলমনের দেহ

স্টাফ রিপোর্টার, হাওড়া: জল আনতে গিয়ে বাড়ি থেকে বেরিয়ে নিখোঁজ হয়ে গিয়েছিল সলমন নামের এক বালক৷ এই ঘটনার তিনদিন পর ওই বালকের দেহ মিলল হাওড়া সংলগ্ন বালির বারীন্দ্রপাড়া এলাকার ঘাট থেকে৷

উল্লেখ্য, রবিবার দুপুরে বালির নিমতলা বিওসি গ্রাউন্ডের সামনে জল আনতে গিয়ে নিখোঁজ হয়ে গিয়েছিল সলমন। বুধবার তার দেহ মেলে গঙ্গার ঘাট থেকে। প্রাথমিক ভাবে অনুমান করা হচ্ছে, জল আনতে গিয়ে গঙ্গায় কোনও ভাবে পড়ে গিয়েছিল সে।

আরও পড়ুন: হার্টফেলের ঝুঁকি কমাবে চকোলেট: গবেষণা

- Advertisement -

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, প্রতি সপ্তাহেই গঙ্গা থেকে জল আনতে যেত সলমন৷ এদিনও বাড়ি থেকে জল আনার জন্য বেরিয়ে ছিল ওই বালক৷ তবে অনেকক্ষণ হয়ে গেলে বাড়ি না ফেরায় পরিবারের সন্দেহ হয়৷ শুরু হয় খোঁজাখুঁজি৷ কিন্তু কোনও খোঁজ মেলে না তার৷ রবিবার দুপুরের পর থেকে নিখোঁজ ছিল সলমন। ওই দিনের ঘটনার পর রাতেই থানায় নিখোঁজ ডায়েরি করেছিলেন সলমানের পরিবার। পরে বুধবার গঙ্গা তেকে উদ্ধার হয় সলমনের দেহ৷

আরও পড়ুন: ট্রেনে ইঁদুরের কামড়ে যাত্রীকে ২৫,০০০ টাকা ক্ষতিপূরণ

প্রসঙ্গত, পেশায় দর্জি মহম্মদ নিয়ামুল প্রায় দেড় বছর আগে ওই এলাকায় বসবাসের জন্য আসেন। মাস দেড়েক আগে তাঁর স্ত্রী বিহার থেকে তিন পুত্রকে নিয়ে হাওড়ার বাড়িতে এসেছিলেন। সলমন তাঁদের মেজো ছেলে ছিল। মৃতের বাবা জানান, এদিন সকালে গঙ্গায় দেহটি ভেসে ওঠে। তাঁরা খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে দেহটি সনাক্ত করে। পুলিশকে খবর দেওয়া হলে পুলিশ এসে মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠায়।

 

Advertisement
-----