প্রতীকী ছবি

স্টাফ রিপোর্টার, বালুরঘাট: বিজেপির মঞ্চে দাঁড়িয়ে অধীর জয়গান নীলাঞ্জনের। শনিবারই রাহুল গান্ধীর হাত ছেড়ে পদ্মের ঝান্ডা কাঁধে নিলেন কংগ্রেসের দক্ষিণ দিনাজপুর তথা উত্তরবঙ্গের তরুণ তুর্কী বলে পরিচিত জেলা সভাপতি নীলাঞ্জন রায়।

এ দিন বালুরঘাটের গুলমোহরে বিজেপিতে যোগদানের কর্মসূচিতে অংশ নিয়ে কংগ্রেসের জেলা সভাপতি নীলাঞ্জন রায় ঘোষনা করেন যে তাঁর প্রিয় নেতা হলেন কংগ্রেসের অধীর রঞ্জন চৌধুরী। তিনি তাঁর প্রিয় ছিলেন এবং থাকবেনও। অধীর রঞ্জন চৌধুরী যেভাবে তৃণমূল কংগ্রেসের বিরুদ্ধে লড়াই করে চলেছেন। সেভাবে হাইকমান্ড তাঁকে মার্যাদা দেয়নি বলেও নীলাঞ্জন রায় অভিযোগ করেছেন।

একদিকে কংগ্রেসের বিধায়ক মনোজ চক্রবর্তী তৃণমূলের হাতে মার খাচ্ছেন। বিধায়িকা ফিরোজা বেগমের গলায় ব্লেড চালিয়ে দেওয়া হচ্ছে ও কংগ্রেসের সাংসদ আবু হাসান চৌধুধীর গাড়িতে বোমা মারছেন তৃণমূলের লোকেরা। আরেক দিকে কংগ্রেসের হাইকমান্ড দিল্লিতে বসে তৃণমূলের সঙ্গে ইফতারপার্টি করছেন। আর বলছেন তৃণমূলের সঙ্গে জোট করতে হবে।

এ দিন বালুরঘাটে বিজেপি শিবিরে যোগ দিয়ে নীলাঞ্জন রায় হাইকমান্ডকে চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিয়ে বলেন, তাঁরা রাহুল গান্ধী ও কংগ্রেসে বিরুদ্ধে জেহাদ ঘোষনা করছেন। হিন্দী সিনেমার ঢং-এ কংগ্রেস ছেড়ে আসা নীলাঞ্জন রায় বলেন বালুরঘাটে ইয়েতো স্রেফ ঝাঁকি হেয়, আউর বাঙাল ম্যায়, বহুত কুছ বাকি হ্যায়। শুধু দক্ষিণ দিনাজপুরেই নয়, বাংলার অন্যান্য জেলাতেও বহু কংগ্রেস ও তৃণমূল কর্মী বিজেপিতে যোগদানের জন্য মুখিয়ে রয়েছেন বলেও তিনি দাবি করেছেন।

----
--