পঞ্চায়েতের বোর্ড গঠন বাতিল করল প্রশাসন

স্টাফ রিপোর্টার, বাঁকুড়া: পঞ্চায়েত বোর্ড গঠনকে ঘিরে তীব্র উত্তেজনা ছড়াল বাঁকুড়ার সিমলাপালের পার্শ্বলা গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকায়। বুধবার পঞ্চায়েতের বোর্ড গঠনের জন্য দিন নির্ধারণ করা হলেও প্রশাসনের তরফে তা বাতিল করা হয়েছে।

কিন্ত সেই বাতিলের নির্দেশের কোন লিখিত নথি বিরোধী বাম-বিজেপি জয়ী প্রার্থীদের কাছে পৌঁছায়নি বলে অভিযোগ। এমনকি বোর্ড গঠন বাতিলের প্রশাসনিক নির্দেশিকা ঘিরেও চাপানোতর শুরু হয়েছে। সিপিএম-বিজেপি নেতৃত্বের অভিযোগ শাসক দলকে সুবিধা পাইয়ে দিতেই প্রশাসনের তরফে বোর্ড গঠনের নির্দেশিকা বাতিল করা হয়েছে।

আরও পড়ুন: ‘অনুপ্রবেশকারী’ রাজনীতিকে ধাক্কা দিয়ে দুর্গা বন্দনায় বাংলাদেশি মুসলিম শিল্পীর গান

- Advertisement -

উল্লেখ্য, ১২ আসনের পার্শ্বলা গ্রাম পঞ্চায়েতে সদ্য সমাপ্ত নির্বাচনে তৃণমূল ৫ টি, সিপিএম ৫ টি ও বিজেপি ২ টি আসনে জয়লাভ করে। এই পরিস্থিতিতে সিপিএম-বিজেপি মিলে এই বোর্ড গঠনের সিদ্ধান্ত নেয়। কিন্তু প্রশাসনের তরফে বোর্ড গঠন বাতিলের নির্দেশিকা ঘিরেই তীব্র চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে এই এলাকায়।

বিজেপি নেতা আলোক হোতা বোর্ড গঠনের নির্দেশিকা বাতিল নিয়ে প্রশাসনের উদ্দেশ্য নিয়ে প্রশ্ন তোলেন৷ তিনি বলেন, এখনও পর্যন্ত আমাদের নির্বাচিত সদস্যরা এই বিষয়ে কোন লিখিত চিঠি হাতে পাননি। প্রশাসনের এই সিদ্ধান্ত শাসক দলকে সুবিধা পাইয়ে দিতেই করা হয়েছে বলে তিনি অভিযোগ করেন।

আরও পড়ুন: টেবিল টেনিসের মিক্সড ডাবলসে ব্রোঞ্জ ভারতের

একই অভিযোগ করেন বিজেপি নেতা প্রশান্ত সিংহমহাপাত্রও। তিনি বলেন, বিজেপি ও সিপিএমের সাত সদস্যকে নিয়ে আমরা বোর্ড গঠনের সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম। তারা প্রশাসনের কাছ থেকে কোন লিখিত নির্দেশ না পেলেও তৃণমূল কর্মী সমর্থকরা বোর্ড গঠন বাতিলের কথা প্রচার করছেন বলে তিনি দাবি করেন।

সিপিএম নেতা মঙ্গল পাল বলেন, বুধবার বোর্ড গঠনের কথা থাকলেও প্রশাসনের নির্দেশে তা বন্ধ করা হয়েছে। এই পরিস্থিতিতে শাসক দল তাদের নির্বাচিত পঞ্চায়েত সদস্যদের নিজেদের দলে টানার চেষ্টা করছে বলেও তিনি অভিযোগ করেন। এমনকি তাদের সদস্যদের বাড়িতে তৃণমূল হানা দিচ্ছে বলেও তিনি অভিযোগ করেন।

আরও পড়ুন: রাষ্ট্রপতির পদের নিরাপত্তা পেলে তবেই পাকিস্তানে ফিরবেন মুশারফ

শাসক দল তৃণমূলের পক্ষ থেকে এই বিষয়ে কোন প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি। স্থানীয় তৃণমূল নেতৃত্ব বিষয়টি প্রশাসনিক সিদ্ধান্ত বলে মন্তব্য করা থেকে বিরত থেকেছেন।

জেলা প্রশাসনের তরফে বিজ্ঞপ্তি জারি করে এদিনের বোর্ড গঠনের কাজ স্থগিত রাখা হয়েছে। এলাকায় উত্তেজনা থাকায় পঞ্চায়েত অফিস চত্ত্বরে বিশাল পুলিশ বাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে।

আরও পড়ুন: চিকিৎসা করাতে এসে খোয়া গেল টাকা ও এটিএম কার্ড

Advertisement ---
---
-----