মাঝেরহাট ব্রিজ বিপর্যয়ের কারণ খুঁজবে হাইপাওয়ার কমিটি

কলকাতা: মাঝেরহাট ব্রিজ বিপর্যয়ের পর নবান্নে উচ্চপর্যায়ের বৈঠক পুর ও নগরোন্নয়ন মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিমের। আধিকারিকদের কাছে সংশ্লিষ্ট ব্রিজ নিয়ে রিপোর্ট চেয়ে পাঠালেন তিনি। মুখ্যসচিবের নেতৃত্বে একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে৷ সেই কমিটিতে কলকাতা পুলিশ, ফরেনসিক ও যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের স্ট্রাকচারাল ইঞ্জিনিয়াররা রয়েছেন৷

মঙ্গলবার রাজ্যপাল কেশরীনাথ ত্রিপাঠী সরেজমিনে তদন্ত করে আঙুল তুলেছেন রাজ্যের পূর্ত দফতরের দিকে। রক্ষণাবেক্ষণে গাফিলতি ছিল বলেই অভিযোগ তুলেছেন বিরোধীরাও। আর এই প্রশ্নে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সাফ জানিয়েছেন, গাফিলতি থাকলে, যে-ই হোক তার বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়া হবে। উচ্চ পর্যায়ের তদন্ত করা হবে মাঝেরহাট ব্রিজ বিপর্যয়-কাণ্ডে।

বুধবার সন্ধ্যায় ঘটনাস্থলে পৌঁছে মেট্রোর কাজ নিয়ে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, “মেট্রোর কাজের জন্য এখানে ভাইব্রেশন বেশি হত। আমরা কোনও অ্যাঙ্গেলকে ছোটো করে দেখতে চাই না। কলকাতা পুলিশ মামলা করেছে। ঘটনার তদন্ত হবে। এই ব্রিজ করতে যতটুকু সময় লাগবে ততদিন একটু সহযোগিতা করতে বলব স্থানীয়দের।”

- Advertisement -

গতকাল বিকেল সাড়ে চারটে নাগাদ ভেঙে পড়ে মাঝেরহাট ব্রিজের একাংশ। দুর্ঘটনার কবলে পড়ে বেশ কয়েকটি গাড়ি। এই দুর্ঘটনায় গতকাল সৌমেন বাগ নামে একজনের মৃত্যু হয়। আহত হন বেশ কয়েকজন। এখনও হাসপাতালে চিকিৎসাধীন কয়েকজন। এদিকে আজ উদ্ধারকাজ চালানোর সময় আরও একটি মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়।

এদিন ব্রিজের ৫০ শতাংশ অংশ ঘুরে দেখেন লালবাজারের ফরেনসিক বিশেষজ্ঞরা। ডঃ সি সরকারের নেতৃত্বে ঘটনাস্থান পরিদর্শন করেন তাঁরা। সূত্রের খবর, খিদিরপুরের দিক দিয়ে তাঁরা নমুনা সংগ্রহের জন্য মাঝেরহাট ব্রিজের উপর ওঠেন। কিছুক্ষণ কাজ করার পর এনডিআরএফ-এর তরফে তাঁদের নেমে যাওয়ার জন্য অনুরোধ করা হয়। বলা হয়, ব্রিজের ভাঙা অংশ সরানোর কাজ চলছে, তাই বিপদের আশঙ্কা রয়েছে। লালবাজারের ফরেনসিক বিশেষজ্ঞ সি সরকার বলেন, “পুরোনো মাদার স্ট্রাকচারের পাশে নতুন কনস্ট্রাকশন হলে মাদার স্ট্রাকচারের ক্ষতির সম্ভাবনা রয়ে যায়।”

ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিমও৷ তিনি বলেন, “রাইটসও সঠিকভাবে তদন্ত করছে না। যখন বড় কিছু আওয়াজ হয়, তখন কম্পন হয়। তা পুরোনো পরিকাঠামোগুলোতে প্রভাব পড়ে। দেখে বোঝা যাচ্ছে, এখানেও এমন হয়েছে। কিন্তু সেটা রাইটস মানছে না। তারা তদন্তে করে বিচার করবে। হাইপাওয়ার কমিটি বাকি সব ঠিক করবে।”

Advertisement ---
---
-----