বারাকপুর: নচিকেতা চক্রবর্তীর গান মানেই তো ঝাঁকুনি৷ সে ঝাঁকুনি প্রেমের আবহে হতে পারে কিংবা রূঢ় বাস্তবের মোড়কে৷ যেখানে নচিকেতা সেখানে মুখের উপর সপাটে সত্যিটা তো এসে পড়বেই৷ তা তাঁর ব্যক্তিগত অ্যালবামের গান হোক বা পুজোর থিম সং৷ হ্যাঁ এই প্রথমবার দুর্গাপুজোর থিম সং গাইলেন নচিকেতা৷ গানের কথা, সুরও তাঁরই৷

উত্তর ২৪ পরগনার পানিহাটির উদয়ন সংঘের পুজো মণ্ডপের এই থিম সং প্রকাশিত হল রবিবার৷ আর সেই গানে রাজনীতির ছোঁয়া৷ সরাসরি শিল্পীর কাছে জানতে চাওয়া হয়েছিল কেন পুজোর গানে রাজনীতি৷ স্পষ্টবক্তা নচিকেতার জবাব, ‘‘পুজো মানুষের জীবনের থেকে বিচ্ছিন্ন কোনও উৎসব তো নয়৷ পুজোতে আমরা আনন্দ করি বা যাই করি তাতে একটা সামাজিক বার্তা সবসময় থাকা উচিত বলে আমি মনে করি৷ সেই চিন্তা থেকেই এই থিম সং৷’’

আরও পড়ুন: রবিবার বৃষ্টি থামায় নতুন আশঙ্কা বাড়ছে কেরলে

এরপরই নচিকেতার বক্তব্য, ‘‘অনেকে মানে প্রাচীনপন্থীরা প্রশ্ন করতে পারেন পুজোর গানের মধ্যে কেন রাজনৈতিক ভাবনা ঢোকানো হল? দেখুন রাজনীতি, অর্থনীতি কিংবা সমাজনীতি বাদ দিয়ে কিছুই হয় না। রাজনীতি, অর্থনীতি বা সমাজনীতি হল তিনটে পিলার৷ এই পিলারের উপরই দাঁড়িয়ে রয়েছে ভক্তি, শ্রদ্ধা সবকিছু৷ আর তা ছাড়া কাউকে না কাউকে তো নতুন কিছু শুরু করতেই হয়৷ সেটা না হয় আমিই করলাম৷’’

তবে এই থিম সং-এ কিন্তু কেন্দ্রীয় সরকারের প্রত্যক্ষ বিরোধীতা রয়েছে৷ তা নিয়ে ইতিমধ্যে সমালোচনাও হচ্ছে৷ যদিও নচিকেতা এসব সমালোচনা-টমালোচনার ধার কোনও দিনই ধারেন না৷ বললেন, ‘‘বিজেপিশাসিত কেন্দ্রীয় সরকারের জন্য আমরা রাজ্যবাসী অত্যন্ত খারাপ অবস্থার মধ্যে আছি৷ আমাদের রাজ্য কেন্দ্রের থেকে কোনও সুযোগ-সুবিধা পায় না৷ টাকাটাও দেয় না৷ আমরা যে খারাপ আছি এর থেকে বড় সত্যি তো আর কিছু নেই!’’

আরও পড়ুন: ওয়ার্নিং-এ কাজ না হওয়ায় ৪৬ জনের বিরুদ্ধে FIR কলকাতা পুলিশের

পানিহাটির উদয়ন সংঘ উত্তর ২৪ পরগনার বড় পুজোগুলির মধ্যে অন্যতম৷ তাঁদের এ বছরের পুজোর থিম মহাশ্বেতা দেবীর ‘হাজার চুরাশির মা’৷ সেই থিমকে মাথায় রেখেই তৈরি হয়েছে থিম সংটিও৷ নচিকেতার কলমের ধারে তা যেন আরও ধারালো৷ সদ্য সঙ্গীত জীবনের ২৫ বছর পূর্ণ করেছেন নচিকেতা৷ এদিন তাঁকে সংবর্ধনা দেন বিধানসভার মুখ্য সচেতক তথা পানিহাটির বিধায়ক নির্মল ঘোষ৷

একটা সময় গৌতম চট্টোপাধ্যায়ের হাত ধরে বাংলা গানের জগতে যে রেনেসাঁর সৃষ্টি হয় সুমন, অঞ্জন, নচিকেতার হাত ধরে তা এগিয়ে চলেছিল৷ একটা ছেলে মাথার চুলগুলো এলোমেলো, রংচটা জিন্স, ঢিলঢিলে শার্ট আর হাতে ব্রহ্মাস্ত্র-গিটার৷ তা নিয়ে হাজার হাজার ছেলে-মেয়ের মনে দাগ কেটেছিল৷

আরও পড়ুন: ব্রোঞ্জ জিতে এশিয়ান গেমসে অভিযান শুরু ভারতের

আজও নীলাঞ্জনা, শতাব্দীরা অগোচরে নিঃশ্বাস ফেলে বহু তরুণের মনে৷ আজও নিজের প্রেমিকের মধ্যে আদিত্য সেনের মতো ছেলেদেরই খোঁজে বহু তন্বী হৃদয়৷ আর এভাবেই আজও প্রেমহীন বাঙালির মনের জানলার কাঁচে আলগোছে টোকা মেরে যায় নচিকেতার সেদিনের একের পর এক হিট গান৷

https://youtu.be/hz2wXw1ikFw

----
--