রাজ্যের পরীক্ষা ব্যবস্থায় সংকীর্ণতা রয়েছে: পার্থ

স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: পরীক্ষা ব্যবস্থায় সংকীর্ণতা রয়েছে৷ তাই রাজ্য বোর্ডের ছাত্র-ছাত্রীরা ৮০০-র মধ্যে ৭৯৯ পায় না৷ রবিবার শিক্ষা সংক্রান্ত অনুষ্ঠানে এমনই মন্তব্য করলেন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়৷

সিবিএসসির যে পড়ুয়া প্রথম স্থান অধিকার করেছে, সে ৫০০-র মধ্যে ৪৯৯ পেয়েছে৷ অথচ, পশ্চিমবঙ্গ বোর্ডের কোনও পড়ুয়া, সে যতই ভালো উত্তর দিক কখনও ৮০০-র মধ্যে ৭৯৯ পায় না৷ এর পিছনে শিক্ষা ব্যবস্থার সংকীর্ণতাকেই দায়ী করেছেন শিক্ষামন্ত্রী৷ তিনি বলেন, ‘‘আমাদের শিক্ষা ব্যবস্থা ভালো৷ কিন্তু, আমাদের পরীক্ষা ব্যবস্থায় কোথাও একটা সংকীর্ণতা রয়েছে৷ তাই আমাদের ছেলেমেয়েরা ৮০০-তে ৭৯৯ পায় না৷’’

শিক্ষামন্ত্রী এ দিন বলেন, ‘‘বলা হয়, ওটা একটা ভালো স্কুল৷ কারণ, সেখানে নির্দিষ্ট নিয়মের বাইরে যাওয়া যায় না৷ আমাদেরও নিয়ম রয়েছে৷ কিন্তু, তাতে শিথিলতার কারণে অনেক সময় আমরা আমাদের লক্ষ্যে পৌঁছতে পারি না৷ আমাদের ভালো স্কুল রয়েছে৷ আরও ভালো হতে হবে৷’’ এই ধরনের মন্তব্যের মাধ্যমে শিক্ষাব্যবস্থায় খামতির বিষয়টি শিক্ষামন্ত্রী কার্যত স্বীকার করে নিলেন বলে মনে করছে ওয়াকিবহাল মহলের বিভিন্ন অংশ৷

এ দিন তিনি শিক্ষা ব্যবস্থাকে আরও উন্নত ও প্রসারিত করার কথাও বলেছেন৷ শিক্ষামন্ত্রী জানিয়েছেন, ইতিমধ্যেই রাজ্যে মোট ২১টি নতুন বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠিত হয়েছে৷ তৈরি হয়েছে ৪৭টি নতুন কলেজ৷ যার মধ্যে দু’টি ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ৷ এর ফলে বাংলার পড়ুয়ারা আর অভিভাবকদের চাপে ভিন রাজ্যে রওনা দিচ্ছে না বলেও দাবি করেছেন পার্থ চট্টোপাধ্যায়৷

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘‘আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি, প্রতিটি জেলায় একটি করে বিশ্ববিদ্যালয় থাকবে৷ যে জেলায় এখনও পর্যন্ত কোনও বিশ্ববিদ্যালয় নেই সেখানেও সরকারি বিশ্ববিদ্যালয় তৈরি হবে৷’’ তিনি জানিয়েছেন, আরও চারটে বিশ্ববিদ্যালয় তৈরি করা হবে৷ এই চারটি বিশ্ববিদ্যালয় হবে আলিপুরদুয়ার, জলপাইগুড়ি, ঝাড়গ্রাম ও পূর্ব মেদিনীপুরে৷

Advertisement
----
-----