দাদার জন্য মা খাবার পাঠালে ফেলে দিত বৌদি!

স্টাফ রিপোর্টার, বহরমপুর: পারিবারিক অশান্তির জেরেই আত্মহত্যা করতে হয়েছে বাড়ির ছেলেকে৷ এমন অভিযোগই তুলল বহরমপুরের মণ্ডল পরিবার৷ এর আগেও দু’বার আত্মহত্যার চেষ্টা করেছিলেন৷ কিন্তু সফল হননি৷ তবে তৃতীয়বার আর শেষ রক্ষা হল না৷ আত্মহত্যার বারবার চেষ্টা এবং মৃত্যু ঘিরে উঠছে প্রশ্ন৷

ক্রমাগত সাংসারিক অশান্তিতে জেরবার হয়েই বহরমপুরের বাসিন্দা তুষারকান্তি মণ্ডল (৪০) আত্মঘাতী হয়েছেন বলে দাবি পরিবারের৷ অভিযোগ, স্ত্রী-র সঙ্গে বনিবনা ছিল না তুষারবাবুর৷ তাঁর স্ত্রী শিলা মণ্ডল ক্রমাগত মানসিক অত্যাচার চালাতেন তাঁর উপর৷ তাই নিজেকে শেষ করে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেন৷ মুর্শিদাবাদের বহরমপুর কাদায় এলাকার একটি আবাসনে এই ঘটনা ঘিরে শোরগোল পড়ে যায়৷

আরও পড়ুন: মেট্রো সাইট থেকে চুরি যাওয়া জিনিস উদ্ধার করল পুলিশ

- Advertisement -

মৃতের বোনের অভিযোগ, পেশায় সেলুন ব্যবসায়ী তুষারকান্তি মণ্ডল মুর্শিদাবাদ জেলার বহরমপুর কাদায় এলাকায় একটি আবাসনে স্ত্রী-র সঙ্গে থাকতেন৷ সাংসারিক বিষয়কে কেন্দ্র করে দীর্ঘদিন ধরেই স্বামী স্ত্রী-র মধ্যে বিবাদ লেগে থাকত৷ এমনকী এই বিবাদের জেরে দাদার বাড়িতে আসতে পারতেন না মৃতের বোন ও মা৷ অন্যান্য আত্মীয়রাও ব্রাত্য ছিলেন৷

স্থানীয় সূত্রে খবর, শুক্রবার স্বামী স্ত্রী-র মধ্যে ফের ঝামেলা বাঁধে৷ এরপরই বাড়ি ছেড়ে চলে যান স্ত্রী শিলা মণ্ডল৷ এদিন রাতে বাড়িতে একাই ছিলেন তুষারবাবু৷ এদিকে শনিবার সকাল থেকে তাঁকে ফোনে না পাওয়া গেলে বাড়িতে ডাকতে আসেন তাঁর দোকানের কর্মীরা। অনেক ডাকাডাকি করেও তাঁর কোনও সাড়া পায় না তাঁরা৷ এরপরই খবর দেওয়া হয় বহরমপুর থানায়।

আরও পড়ুন: ঋষভের হাতে টেস্ট ক্যাপ তুলে দিলেন বিরাট

পরে পুলিশ এসে ঘরের ভিতর থেকে তাঁর ঝুলন্ত মৃতদেহ উদ্ধার করে৷ মৃতদেহটি ময়নাতদন্তের জন্য মুর্শিদাবাদ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। রহস্যজনক এই মৃত্যুতে স্ত্রীর বিরুদ্ধে খুন করে ঝুলিয়ে দেওয়ার অভিযোগ দায়ের করেছেন মৃতের পরিবারের সদস্যরা।

মৃতের বোন ঝুম্পা মণ্ডল বলেন, ‘‘বাড়িতে অশান্তির জেরে আমি, মা কেউ আসতে পারতাম না৷ এলেও বাড়ির দরজা থেকেই আমাদের চলে যেতে হত৷ এমনকি দাদার জন্য কিছু খাওয়ার পাঠালে সব ফেলে দিত বৌদি৷ এর আগেও দাদা দু’বার আত্মহত্যা করার চেষ্টা করে৷ তখন প্রতিবেশীরা দাদাকে বাঁচিয়ে দেয়৷’’

আরও পড়ুন: মেয়র-পত্নী রত্নার আয়-ব্যয়ের হিসেব নিয়ে সংশয় প্রকাশ ইডির

ইতিমধ্যেই গোটা ঘটনায় অভিযুক্ত স্ত্রী শিলা মণ্ডলের বিরুদ্ধে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন মৃতের পরিবার৷ অভিযোগের ভিত্তিতে ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে স্থানীয় বহরমপুর থানার পুলিশ৷

Advertisement ---
---
-----