EXCLUSIVE যে ১০ বিভীষণ উল্টে দেবেন কর্ণাটকের রায়

স্টাফ রিপোর্টার: কী হবে শনিবার? জানতে চায় দেশ৷ দক্ষিণ থেকে উত্তর সরাসরি কাল্পনিক রেখা টানলে সুদূর মহীশূর থেকে কাশ্মীর পর্যন্ত চলছে এই আলোচনা৷ শনির বার বেলাতে কি উল্টে যাচ্ছে কর্ণাটকের ভোট রায়৷ যাবতীয় অংক জটিলতার মাঝেই kolkata24x7 এর হাতে এসেছে এমন সব বিধায়কদের তালিকা, যারা বিভীষণ হচ্ছেন৷

কারা এই ১০ জন বিধায়ক? সুদূর কর্ণাটক থেকে সূত্র মারফত kolkata24x7 এর কাছে সেই তালিকাও চলে এসেছে৷ তাঁরা হলেন কংগ্রেসের আনন্দ সিং, প্রতাপ গোড়া পাতিল, বি নারায়ণ রাও, মহতেশ কাউজলবি, ওমরায়ে গোড়া, ডি এম হোলাগেড়ি, রাজেশ্বর পাতিল প্রমুখ৷ এছাড়া জেডি(এস) এর বিধায়ক ভেঙ্কটরাও নডাগড়া, কেপিজেপি দলের শঙ্কর এবং নির্দল বিধায়ক এইচ নাগেশ৷ সকাল থেকে আনন্দ সিং এর কোনও খোঁজ পাওয়া যাচ্ছে না৷ কংগ্রেস বলছে তিনি নিখোঁজ৷ আরেক এক বিধায়ক ওষুধ কিনতে সেই যে বেরিয়েছেন আর এখনও অবধি ফেরেননি৷ এরাই নাকি বিজেপি শিবিরে যাচ্ছেন৷ তাতে ক্ষমতায় থাকা পাকা হচ্ছে ইয়েদুরাপ্পার৷

এদিকে হায়দরাবাদে কংগ্রেস বিধায়কদের নিয়ে হোটেল বন্দি করে রাখা হয়েছে৷ সেখানে পৌঁছে গিয়েছেন জয়ী জেডিএস বিধায়করা৷ আছেন জোটের তরফে হবু মুখ্যমন্ত্রী কুমারস্বামী ও প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী সিদ্দারামাইয়া৷ হায়দরাবাদ থেকেই শনিবার বেঙ্গালুরুতে যাবেন তারা৷ ভোটের ফলাফল বলছে, ২২৪টি আসনের মধ্যে বিজেপির ঝুলিতে গিয়েছে ১০৪টি আসন৷ কংগ্রেস পেয়েছে ৭৭টি আসন৷ জেডি(এস) পেয়েছে ৩৮টি আসন৷ সংখ্যাগরিষ্ঠতা প্রমাণ করতে দরকার ১১২টি ভোট৷ যার মানে বিজেপির দরকার আর মাত্র আটজন বিধায়ক৷

হালকা মেজাজের সুরে এক বিজেপি নেতা জানিয়েছেন, বিরোধীদের ঘর ভাঙার কোনও দরকার নেই৷ বরং বিরোধীরাই বিজেপিকে সমর্থন করবে বলে পা বাড়িয়ে রেখেছে৷ তাঁর দাবি, কংগ্রেস শিবিরের সাত জন বিধায়ক বিজেপির সঙ্গে প্রতিনিয়ত যোগাযোগ রেখে চলেছেন৷ ফলে কর্ণাটকে সরকার ধরে রাখার স্বপ্ন দেখতে শুরু করেছে বিজেপি৷

শনিবার অগ্নিপরীক্ষা৷ এই পরীক্ষায় পাশ করতে পারলেই আর পাঁচ বছরের জন্য দক্ষিণী রাজ্য কর্ণাটক শাসন করবে বিজেপি৷ শুধু তাই নয় দক্ষিণ ভারতে তাদের অবস্থান আরও পাকা হবে৷ কয়েকটি রাজ্যে আগামী বিধানসভা নির্বাচনের জন্য সেটা হবে বাড়তি অক্সিজেন৷ সবমিলে বিভীষণদের শক্তিতে স্বস্তির হাওয়া বইছে বলেই দাবি বিজেপির৷

©Kolkata24x7 এই নিউজ পোর্টাল থেকে প্রতিবেদন নকল করা দন্ডনীয় অপরাধ৷ প্রতিবেদন ‘নকল’ করা হলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে ----
----
---