ফাইল ছবি

ত্রিবান্দ্রাম: রমজানের মাসে সম্প্রীতির নজির তৈরি করে এই মসজিদ৷ শুধু মুসলিম সম্প্রদায়ের মানুষরাই নন, এখানে ইফতারের খাওয়া দাওয়ায় ঠাঁই পান সব ধর্মের মানুষ৷

স্থানীয় বাসিন্দা তো বটেই, পথচলতি সব মানুষ, ভিখারি, পর্যটক-সবাইকে খাওয়ায় কেরলের ত্রিবান্দ্রামের এই ২০০ বছরের পুরোন মিলিটারি মসজিদ৷ হ্যাঁ, এই নামেই পরিচিত এই জুমা মসজিদ৷
ইতিহাস বলে ত্রিবাঙ্কুরের রাজাদের সময়ে তৈরি করা এই মসজিদ মুসলিম সৈন্যদের জন্য বানানো হয়েছিল৷ সেই সময় এখানে সেনারা আশ্রয়ও নিতেন৷ লোক মুখে পরে এই মসজিদের নাম মিলিটারি মসজিদ হয়ে যায়৷

Advertisement

মসজিদের গায়েই একই পাঁচিলের ওপারে রয়েছে একটি মন্দির৷ কিন্তু কোথাও এতটুকু বিচ্যুতি নেই৷ কোথাও মন কষাকষি, দ্বন্দ্বের লেশ নেই৷ এভাবেই এক সাথে শান্তিপূর্ণ সহাবস্থানে বিশ্বাসী মিলিটারি মসজিদ৷

ত্রিবান্দামের পালায়ামে ২০০ বছর আগে গড়ে উঠেছিল জুমা মসজিদ৷ যেখানকার একটি বিশেষত্ব হল রোজা ভঙ্গের পর প্রতিদিন এখানে একটি স্বাস্থ্যকর অথচ সুস্বাদু খাবার বিতরণ করা হয়৷ যার নাম ঔষধা কাঞ্জি৷ স্বাস্থ্যবর্ধক এই খাবারটি খেতে দূর দূরান্ত থেকে আসেন মানুষ৷ খাবারটি পরিবেশনও করা হয় পরিবেশ বান্ধব পদ্ধতিতে৷

এই মসজিদে মহিলারাও প্রার্থনা করতে পারেন৷ এখানকার এমনই দস্তুর৷ এই মসজিদ চত্ত্বরেই নিজেদের উপবাস ভঙ্গ করতে পারেন তাঁরা৷ প্রতিদিন ১২০০ মানুষের পেট ভরায় এই মসজিদ৷

----
--