মুম্বই : দূষণ শব্দটা এখন দৈনন্দিন জীবনের সঙ্গে জড়িয়ে গিয়েছে। আর দূষণ থেকে মুক্তিও একমাত্র উপায় হল সবুজায়ন। একদিকে যখন, গণেশ পুজোয় দূষণ ঘিরে বিশেষজ্ঞরা সতর্কবার্তা দিচ্ছে, অন্যদিকে তখন এই গনেশ চতুর্থীকেই সবুজায়নের কাজে লাগালেন এক শিল্পী। নিলেন এক অভিনব উদ্যোগ। মাটি দিয়ে এমন গণেশমূর্তি বানিয়েছেন তিনি ‌যা থেকে দূষণ তো ছড়াবেই না উলটে রোজ জল ঢাললে গণেশ পরিণত হবে মহীরুহে।

দরজায় কড়া নাড়ছে মারাঠিদের সব থেকে বড় উৎসব গণেশ চতুর্থী। আর তার সঙ্গে মুম্বইকারদের কপালে ভাঁজ ফেলেছে দূষণের চিন্তা। প্রতি বছর পুজো শেষে হাজার হাজার প্রতিমা বিসর্জন হয় আরব সাগরের সৈকত ও বিভিন্ন জলাশয়ে। প্রতিমার রাসায়নিক রংয়ে বিষাক্ত হয়ে ওঠে জল। এই সমস্যার দারুণ এক সমাধান বার করেছেন শিল্পী দত্তাদ্রি কথুর। মাটি দিয়ে এমন গণেশমূর্তি তিনি বানিয়েছেন ‌যা দূষণ তো ছড়াবেই না, উলটে পুজো শেষে রোজ জল দিলে তা থেকে বেরোবে গাছ।

Advertisement

মুম্বইয়ের লোয়ার প্যারেলের বাসিন্দা এই শিল্পী মাটির মূর্তির মধ্যে গেঁথে দিয়েছেন বীজ। পুজোর পর মূর্তি বিসর্জন না দিয়ে একটি টবের ওপর রেখে রোজ জল দিলে গলে ‌যাবে মাটি, অঙ্কুরিত হবে বীজ। দত্তাদ্রি তাঁর তৈরি গণেশমূর্তির নাম দিয়েছে ট্রি-গণেশ। দত্তাদ্রির এই উদ্যোগ ইতিমধ্যে ছড়িয়ে পড়েছে সোশ্যাল সাইটে। দত্তাদ্রির উদ্যোগে সঙ্গী হয়েছেন অভিনেত্রী দিয়া মির্জাও।

----
--