‘ভাইয়া অ্যায়সা মত করো’, কাতর আর্জির পরও চলল শ্লীলতাহানি

ছবি- প্রতীকী

লখনউ: আবারও খবরের শিরোনামে উন্নাও৷ আবারও সেই নারী নির্যাতনের কারণে৷ যদিও এবার পুলিশ দ্রুততার সঙ্গে ব্যবস্থা নিয়েছে৷ রাহুল ও আকাশ নামে দুই জন নারী নিগ্রহকারীকে গ্রেফতার করেছে৷ ঘটনায় জড়িত আরও একজন পলাতক৷ তাকে খুঁজছে পুলিশ৷

গত ৫ জুলাই থেকে সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি ভিডিও ভাইরাল হয়ে যায়৷ তাতে দেখা গিয়েছে, তিন যুবক মিলে এক মহিলার শ্লীলতাহানি করছে৷ ওই মহিলা যুবকদের ‘ভাই’ সম্বোধন করে তাঁকে ছেড়ে দেওয়ার কাতর আর্জি জানাচ্ছে৷ কিন্তু তাঁর আর্জিতে পাত্তা না নিয়ে মজা নিচ্ছে যুবকেরা৷

সোশ্যাল মিডিয়ায় এই ভিডিও কী ভাবে ছড়িয়ে পড়ল তাই নিয়ে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ৷ উন্নাওয়ের পুলিশ সুপার অনুপ সিং জানিয়েছেন, তদন্ত শুরু হয়েছে৷ যে বা যারা এই কাজ করেছে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে৷

- Advertisement -

চলতি বছর এক ১৬ বছরের কিশোরীকে ধর্ষণের ঘটনার পর খবরের শিরোনামে চলে আসে উন্নাও৷ বিজেপি বিধায়ক কুলদীপ সেনগারের বিরুদ্ধে ওই কিশোরীকে ধর্ষণ করার অভিযোগ ওঠে৷ পুলিশের কাছে অভিযোগে ওই কিশোরী জানিয়েছিলেন, ২০১৭ সালের ৪ জুন চাকরি দেওয়ার নাম করে তাকে বাড়িতে ডেকে ধর্ষণ করেন কুলদীপ৷

পুলিশের বিরুদ্ধে প্রথমে এফআইআর না করার অভিযোগ ওঠে৷ পরে এই ঘটনার তদন্তে সিবিআই গঠিত হয়৷ এ দিকে এপ্রিল মাসে নির্যাতিতার বাবাতে অস্ত্র আইনে গ্রেফতার করে পুলিশ৷ এবং তাঁকে জেলে পাঠায়৷ পুলিশি নিস্ত্রিয়তার অভিযোগ তুলে ৮ এপ্রিল মুখ্যমন্ত্রীর বাড়ির সামনে আত্মহত্যার চেষ্টা করে ওই নির্যাতিতা৷ পরের দিন জেলে তার বাবার রহস্যজনক মৃত্যু হয়৷ ময়নাতদন্তের রিপোর্টে শরীরে বেশ কিছু গুরুতর জখমের চিহ্ন পাওয়া যাওয়ার কথা উল্লেখ করেছে৷

Advertisement ---
---
-----