সামনে হাতির পাল, পালাতে গিয়ে পড়ে গেল তিন বছরের মেয়েটা…

স্টাফ রিপোর্টার, জলপাইগুড়ি: রাখে হরি মারে কে? হাতির পালের সামনে পড়েও প্রাণে বেঁচে গেল তিন বছরের মেয়ে৷ সাথে প্রাণে বাঁচলেন লাটাগুড়ির বাসিন্দা নিতু ঘোষ ও তাঁর স্ত্রী৷

জলপাইগুড়ি গরুমারা জঙ্গল সংলগ্ন ময়নাগুড়ি- মালবাজারের রাস্তায় হাতির আক্রমন থেকে অল্পের জন্য প্রাণে বাঁচলেন তাঁরা৷ স্কুটির সামনে হঠাৎ হাতি চলে আসায় গাড়ি ফেলে নিজেরা পালালেও, নিতু বাবুর তিন বছরের কন্যা সন্তান হাতির সামনে পড়ে যায়।

- Advertisement -

যদিও হাতিটি শিশুটিকে কিছুই করেনি। পথচলতি সাধারন কিছু মানুষ ও গাড়ির চালকেরা শিশুটিকে হাতির সামনে থেকে উদ্ধার করে। লাটাগুড়ির বাসিন্দা নিতু ঘোষ, তার শ্রী সরস্বতী ঘোষ এবং তিন বছরের শিশু কন্যাকে নিয়ে আজ সকালে গরুমারা জঙ্গলের মহাকালধামে পুজো দিতে যান৷

পুজো দিয়ে ফেরার পথে হঠাৎ তিন থেকে চারটি হাতির দল নিতু বাবুর স্কুটির সামনে চলে আসে। হাতি দেখে স্কুটি ফেলে পালিয়ে যান নিতু বাবু ও তার শ্রী সরস্বতী দেবী৷ কিন্তু পালানোর সময় তিন বছরের শিশু কন্যা পড়ে যায় হাতির সামনে।

হাতির চার পায়ের নিচে শিশুটি কাঁদতে শুরু করে। কোনওক্রমে পথচলতি কিছু মানুষের সাহায্যে শিশুটিকে উদ্ধার করা হয়৷ হাতির হানা থেকে বাঁচার জন্য পালাতে গিয়ে মারাত্মক ভাবে জখম হন নিতু ঘোষ ও তার স্ত্রী৷

নিতু ঘোষ, তাঁর স্ত্রী ও সন্তানকে জলপাইগুড়িতে একটি বেসকারি হাসপাতালে ভরতি করা হয়েছে। কার্যত মৃত্যুর মুখ থেকে ফিরে এসে প্রবল আতঙ্কিত ঘোষ পরিবার।