বিজেপির দেওয়াল দখলে অভিযুক্ত মমতার দল

স্টাফ রিপোর্টার, বারুইপুর: ভোটের দিনক্ষণ এখন বিশ বাঁও জলে৷ তবু বন্ধ নেই দলাদলি, খাওয়াখাওয়ি, বিভাজনের রাজনীতি৷ প্রচারের জন্য আগেভাগে দেওয়াল দখল করে রেখেছিল বিজেপি৷ রাতারাতি নাকি সে দেওয়ালে ঘাসফুল গজিয়ে গিয়েছে তুলির টানে৷ অভিযোগটি বারুইপুরের আটঘরা এলাকার৷

আরও পড়ুন: ফিরে আসার জন্য লড়াই করছিলাম: সাইনা

বিজেপির অভিযোগ, দেওয়ালে চুনকাম সেরে পদ্মফুলও আঁকা হয়ে গিয়েছিল৷ রবিবার রাতে গোপনে সেই দেওয়াল দখল নেয় স্থানীয় তৃণমূল৷ এক কাঠি এগিয়ে ঘাসফুল প্রতীকের সঙ্গে প্রার্থীর নামও সেখানে লিখে ফেলে তারা৷

- Advertisement -

আরও পড়ুন: স্বামীর পুরুষাঙ্গ কেটে দিলেন প্রথম স্ত্রী! কারণ জানলে আঁতকে উঠবেন

বিজেপি কর্মীরা সোমবার সকালেই বারুইপুর থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন৷ তবে তৃণমূলের অভিযোগ, বিজেপির লোকজনই নাকি ওই দেওয়ালে তৃণমূল প্রার্থীর নাম ও দলের প্রতীক এঁকেছেন৷ এলাকায় অশান্তি ছড়াতেই বিজেপির এই কাজ বলে দাবি স্থানীয় এক তৃণমূল নেতার৷

দক্ষিণ ২৪ পরগনার বারুইপুর থানার মদারাট গ্রামপঞ্চায়েত৷ তারই অধীনে আটঘরা৷ ভোটের বাদ্যি বাজতেই সেখানে দেওয়া দখলে নেমে পড়েছে বিভিন্ন রাজনৈতিক দলগুলি৷ স্বভাবতই জোর যার মুলুক তারই হবে৷ সেইমতো এলাকার অধিকাংশ দেওয়ালই দখলে রাখে তৃণমূল৷ তবে আটঘরার একটি দেওয়ালে রবিবার বিকেলেই বিজেপি চুনকাম করে৷ সেখানে দলীয় প্রার্থীর হয়ে প্রচার করার পরিকল্পনা ছিল গেরুয়া শিবিরের৷ কিন্তু রাতেই তা তৃণমূল দখল করে নেয় বলে অভিযোগ৷

স্থানীয় বিজেপির নেতা পঞ্চানন ঘোষ বলেন, “আমরা এই এলাকায় দেওয়াল দখল করেছিলাম৷ অথচ তৃণমূল সেখানে নিজেদের প্রতীক এঁকেছে৷ প্রার্থীর নামও লিখে ফেলেছে৷ আসলে ওরা ইচ্ছে করে এলাকায় ঝামেলা বাঁধাতে চাইছে৷ থানায় জানিয়েছি৷ এবার নির্বাচন কমিশনকেও জানাব৷’’

আরও পড়ুন: শিক্ষক এবং শিক্ষাকর্মীদের অবসরের বয়স ৬০ থেকে বেড়ে ৬৫

তৃণমূল অবশ্য এসব কথাকে ভিত্তিহীন বলে দাবি করেছে৷ দলের স্থানীয় নেতা রক্ষিতচন্দ্র নস্কর বলেন, ‘‘আমরা বরাবরই এই দেওয়ালে লিখি৷ কিন্তু এবার বিজেপির লোকজনই ওই দেওয়ালে আমাদের প্রার্থীর নাম, দলের প্রতীক এঁকে দিয়েছে৷ আসলে এসব করে ওরা এলাকা অশান্ত করার চেষ্টা করছে৷ তবে বিজেপির সব চেষ্টাই বিফলে যাবে৷ নিরঙ্কুশ সংখ্যা গরিষ্ঠতাতেই আমরা জিতব৷’’

Advertisement
---